বিজ্ঞাপন

চাঁদের খামখেয়ালিপনায় আসছে ভয়াবহ বন্যা

June 20, 2022 | 3:31 pm

ফিচার ডেস্ক

পৃথিবীর উপগ্রহ চাঁদের গতিবিধির ‘খামখেয়ালিপনার’ জন্য আগামী এক দশকের মধ্যে আসছে ভয়াবহ সব বন্যা। এসব বন্যা হবে দীর্ঘস্থায়ী। আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান গবেষণা পত্রিকা ‘নেচার ক্লাইমেট’ এ প্রকাশিত নাসার বিজ্ঞানীদের যৌথভাবে লেখা এক নিবন্ধে এই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে। আর এই বিষয়ে খবর প্রকাশ করেছে দ্য ওয়েদার নেটওয়ার্ক।

বিজ্ঞাপন

মহাকাশ ও আবহাওয়াবিষয়ক বিজ্ঞানীদের লেখা ওই নিবন্ধে বলা হয়েছে, পৃথিবীকে প্রদক্ষিণের পথ শেষ করতে সাড়ে ১৮ বছরের একটি চক্র রয়েছে চাঁদের। এই সময়কালের অর্ধেক সময় চাঁদের টানে পৃথিবীর সব সাগর, মহাসাগরে ভাটার চেয়ে জোয়ারের পরিমাণ ও প্রাবল্য বেশি হয়। চক্রের বাকি অর্ধেক সময় এর উল্টোটা হয়। পৃথিবীর সব সাগর, মহাসাগরে ভাটার পরিমাণ ও প্রাবল্য বেশি হয় জোয়ারের চেয়ে।

চাঁদের খামখেয়ালিপনায় আসছে ভয়াবহ বন্যা

বিজ্ঞাপন

তবে একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর উপগ্রহটির কক্ষপথের অবস্থান কিছুটা সংকুচিত হয়ে পড়ে। ভিডিও বিশ্লেষণে মনে হয়, চাঁদ যেন একটু ঝুঁকে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করছে। চাঁদ কক্ষপথে এখন যে পর্যায়ে রয়েছে তাতে পৃথিবীর সব সমুদ্র, মহাসাগরে ভাটার পরিমাণ ও প্রাবল্য একটু বেশি জোয়ারের চেয়ে। কিন্তু সেই অবস্থা বদলাবে এই শতাব্দীর তৃতীয় দশকে পা দেওয়ার পরপরই। আর সেই সময়ে পৃথিবীতে দেখা দেবে জোয়ারের অস্বাভাবিক উত্থান। সমুদ্র ও মহাসাগরগুলির পানির স্তর বেড়ে যাওয়ায় দেখা দেবে বন্যা। এই অবস্থা কয়েকমাস স্থায়ী হবে। আর চাঁদের একটু ঝুঁকে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করা যুক্তরাষ্ট্র, ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, জাপান, ভারত, থাইল্যান্ড, মালদ্বীপ, বাংলাদেশসহ বহু দেশের জন্য ঝুঁকির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

চাঁদের খামখেয়ালিপনায় আসছে ভয়াবহ বন্যা

বিজ্ঞাপন

নিবন্ধে আরও একটি অবস্থার ওপর আলোকপাত করেছেন বিজ্ঞানীরা। সেটি হলো চাঁদের এই প্রদক্ষিণ চক্র তো নতুন কিছু নয়। আগেও ঘটেছে। তাহলে এবার কেন আসবে এই অতিরিক্ত বন্যা? এর উত্তর হলো, গত দুই দশকে জলবায়ু পরিবর্তন, বৈশ্বিক উষ্ণায়নের কারণে ভূপৃষ্ঠের তাপমাত্রা বাড়া, সমুদ্রস্তরের উচ্চতা বাড়া সবই সর্বকালের রেকর্ড ভেঙেছে। এর ফলে অনেক দেশই সমুদ্রগর্ভে যাওয়ার আশংকায় রয়েছে। সেই সঙ্গে চাঁদের কারণে জোয়ারের অস্বাভাবিক উত্থান ভয়াবহ বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবিডিই/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন