বিজ্ঞাপন

‘অবৈধ সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না’

June 24, 2022 | 10:09 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: গণফোরাম সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেছেন, সরকার জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার ক্ষুন্ন করেছে। এর জবাব জনগণকে সঙ্গে নিয়ে অবশ্যই জবাব গণফোরাম দিবে। গণতন্ত্রমনা দলগুলোকে সংগঠিত হতে দেখে সরকার ভয় পাওয়ার মানে ক্ষমতাসীন অবৈধ আওয়ামী লীগ সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, 'জনগণের দুঃখ-দুর্দশা আপনাকে স্পর্শ করে না। যদি করতো তাহলে জাতির এই দুর্যোগে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের জমকালো অনুষ্ঠান আপনি বন্ধ করে বন্যার্ত মানুষের জন্য বরাদ্দ দিতেন। আমরা সবাই জানি আপনি এই পদ্মা সেতু করেছেন, তার জন্য প্রশংসা আপনি পাবেন কিন্তু জনগণ হাহাকারে তখন আনন্দ উল্লাসের মাধ্যমে জনগণের কষ্টের কথা চিন্তা না করে পদ্মা সেতুর জাঁকঝমকপূর্ণ উদ্বোধনে আবারো প্রকাশিত হয়ে আপনি জনগণের ভোটে নির্বাচিত নন।'

শুক্রবার (২৪ জুন) ঢাকা জেলা গণফোরামের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

সম্মেলন উদ্বোধনকালে গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ বলেন, 'সারাজীবন দেখেছি আর চির সত্য এটাই দুর্যোগে পতিত অসহায়, দুঃখী, বানভাসি মানুষের পাশে কোনো স্বৈরাচারী সরকার দাঁড়ায়নি বরং তারা তাদের তথাকথিত উন্নয়নের প্রচারণার ডামাডোল বাজিয়েছে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন তারই প্রমাণ। দুর্নীতিবাজ লুটপাটকারীদের সুবিধা দেওয়া এই রাষ্ট্রে জনগণের অধিকার আদায় করতে নির্দলীয় অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের দাবিতে সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে জনতার আন্দোলন গড়ে তুলবে গণফোরাম।'

গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, 'জনতার জোয়ার আপনি থামাতে পারবেন না, আপনি কি ভাবেন আপনাদের ভাওতাবাজি জনগণ বুঝে না! আপনি ক্ষমতা নিয়ে এতো শংকিত, একটি রাজনৈতিক দলের জেলা সম্মেলন করতে দিতেও ভয় পান। গোয়েন্দা সংস্থার কাজ রাজনৈতিক দলকে কোণঠাসা করা নয়, তাদের উপর নিপীড়ন নির্যাতন করা নয়। কিন্তু আপনি রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে নিজের ইচ্ছেমতো ব্যবহার করতে পারেন না। আপনি এই রাষ্ট্রকে ভয়ংকর বিপদের দিকে ঠেলে দিয়েছেন। আপনি ১৪ বছর ধরে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করেছেন। বিচার বিভাগ ও নির্বাচন কমিশন সহ সকল জায়গায় দলীয়করণ করে ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করতে চান, আপনার সেই দুঃস্বপ্ন জনগণ বাস্তবায়ন করতে দিবে না। গণআন্দোলনের মাধ্যমে সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে নির্দলীয় নিরপেক্ষ অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করা হবে।

বিজ্ঞাপন

উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পিপলস পার্টির চেয়ারমান বাবুল সর্দার চাখারী, গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট মোহসীন রশিদ, অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন আবদুল কাদের, সভাপতি পরিষদ সদস্য আতাউর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লতিফুল বারী হামিম, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ রওশন ইয়াজদানী, তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ মধু, মহিলা সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন শাপলা, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কামাল উদ্দিন সুমন, রিয়াদ হোসেন সহ ঢাকা মহানগর ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

ঢাকা জেলা গণফোরামের সম্মেলনে মো. হামিদ মিয়াকে সভাপতি ও মতিউর রহমান খোকনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএইচএইচ/একেএম

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন