বিজ্ঞাপন

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে পর্তুগাল আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আনন্দ সভা

June 27, 2022 | 10:24 am

সারাবাংলা ডেস্ক

লিসবন: পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় শনিবার (২৫ জুন) পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের স্পাইস হাট রেস্টুরেন্টে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আনন্দ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পর্তুগাল আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসাইনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জহিরুল আলম জসিম।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে পর্তুগাল আওয়ামী লীগ সভাপতি জহিরুল আলম জসিম বলেন, পদ্মা সেতু দুনিয়ায় বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে তাই শেখ হাসিনাকে আজ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রনেতারা শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। একসময় মাদারীপুর থেকে ঢাকা যেতে ৬টা ফেরী পার হতে হতো। এখন আর পদ্মার ঘাটে শাক সবজি পচবে না, আমের গাড়ি কিংবা অ্যাম্বুলেন্স আটকে থাকবে না।

ফরিদপুর-মাদারীপুর, শরিয়তপুর গোপালগঞ্জসহ দক্ষিণাঞ্চলের ৩ কোটি মানুষের জীবনে উন্নয়ন ঘটাবে পদ্মা সেতু। এটি চালুর মধ্য দিয়ে শুধু এ অঞ্চলের জনগণের জীবনমানকে এগিয়ে নেবে তাই নয়, বরং এটা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে পুরো বাংলাদেশের মানুষের জীবনকেই এগিয়ে নেবে। পুরো দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে পদ্মা সেতু হতে চলছে একটি নতুন মাইলফলক। ইতিমধ্যে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের মুখে হাসি ফুটেছে এই সেতুকে ঘিরে।

বিজ্ঞাপন

পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সহ.সভাপতি মিজানুর রহমান মোল্লা বলেন, জনগণের ভালোবাসায় আজ সেতু বাস্তব। কমিউনিটির সিনিয়র ব্যক্তিত্ব, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা শুয়েব মিয়া বলেন, সব ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে প্রধানমন্ত্রীর অদম্য মনোবলের কারণেই পদ্মা সেতু আজ বাস্তব রূপ নিয়েছে।

পর্তুগাল আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন ভুঁইয়া বলেন, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিনটি আজ ছিল গোটা বাংলাদেশের জন্য ইদ। সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল ফকির বলেন, এই সেতু উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে আমাদের চোখে পানি চলে এসেছে। প্রতিবছর ঈদে লঞ্চ ডুবত, ফেরি ডুবত, শত শত মানুষের প্রাণহানি ঘটত, এই জায়গা থেকে প্রধানমন্ত্রী আমাদের উত্তরণ ঘটিয়েছেন, এজন্য তাকে অভিবাদন জানাই।

বিজ্ঞাপন

পর্তুগাল আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক জাকির হোসেন বলেন, খালেদা-নিজামি-ইউনুস গংদের মুখে চুনকালি এটে দিয়েছে পদ্মা সেতু। অনুষ্ঠানে যুবলীগ নেতা তানভীর আলম জনি বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তীকালে বাংলাদেশের অন্যতম সক্ষমতা ও অর্জনের প্রতীক হলো এই পদ্মাসেতু। যারা মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা চায়নি তারা এই সেতুকে মেনে নিতে পারছে না।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মাহবুব আলম, আওয়ামী লীগ নেতা আলিম উদ্দিন, ইসমাইল হোসেন জুয়েল, জামাল উদ্দিন, যুবলীগ নেতা খ ই ফাহাদ, ছাত্রলীগ নেতা ইকরাম। অনুষ্ঠান শেষে প্রবাসীদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আইই

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন