বিজ্ঞাপন

‘নিজের গায়ে’ আগুন দেওয়া চিকিৎসক অদিতির মৃত্যু

June 29, 2022 | 12:54 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর ওয়ারী হেয়ার স্ট্রিট এলাকার একটি বাসায় দগ্ধ চিকিৎসক অদিতি সরকার (৩৮) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে মারা গেছেন। তিনি নিজের গায়ে নিজেই আগুন দিয়েছেন বলে ধারণা করছেন স্বজনরা।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (২৯জুন) সকাল ১০টার দিকে বার্ন ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে মারা যান অদিতি সরকার। মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বার্ন ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।

ডা. সামন্ত জানান, অদিতির শরীরের ৫০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। গত ২৪ জুন দগ্ধ অবস্থায় ভর্তি হয়েছিলেন অদিতি।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত শুক্রবার (২৪জুন) বেলা সোয়া ১২টার দিকে ওয়ারী ১০ নং হেয়ার স্ট্রিট বাসাটির ৬ষ্ঠ তলার বাসায় দগ্ধ হয় অদিতি।

ডা. অদিতির স্বামী মনেষ মণ্ডল জানান, অদিতি মিটফোর্ড হাসপাতালের শিশু বিভাগের রেজিস্টার ছিলেন। তাদের ঘরে দুই সন্তান। আর তিনি নিজে প্রকৌশলী। তাদের বাড়ি ঢাকার নবাবগঞ্জে। দীর্ঘদিন ধরে অদিতি শারীরিক ভাবে অসুস্থ ও আপসেট ছিলেন। তাকে চিকিৎসাও নিতে বলছিলাম। তবে চিকিৎসা নিতে চাচ্ছিলেন না অদিতি। এজন্য আমাদের মধ্যে সামান্য ঝগড়াঝাটি হয়।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার দিনের বর্ণনা দিয়ে মনেষ মণ্ডল বলেন, সেদিন সকালে আমি কাজে অফিসে ছিলাম। অনলাইনে একটি সাক্ষাতকার দিচ্ছিলাম, তখন বারবার ফোন দিচ্ছিল অদিতি। ফোন কেটে দেওয়ার পরও অদিতী আমার মোবাইল ফোনে কল দিচ্ছিল। পরে ফোন রিসিভ করে তার সঙ্গে সামান্য রাগ করে কথা বলি।

তিনি জানান, দুপুরে বাসায় ফিরে জামাকাপড় ছাড়ছিলাম। হঠাৎ পাশের রুমে অতিদির চিৎকার শুনতে পাই। দৌড়ে গিয়ে দেখি তার শরীরে আগুন জ্বলছে। সঙ্গে সঙ্গে বাথরুমে নিয়ে তার শরীরে পানি ঢালি। এরপর ট্রিপল নাইনের মাধ্যমে একটি এ্যাম্বুলেন্স ডেকে বার্ন ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাই।

বিজ্ঞাপন

মনেষ মণ্ডল দাবি করেন, অদিতি নিজের গায়ে নিজেই আগুন দিতে পারেন। অথবা পাশের রুমে পূজার সময় তার শরীরে আগুন লেগে যেতে পারে।

ওয়ারী থানার ওসি কবির হোসেন হাওলাদার জানান, মৃত্যুর আগে বলে গিয়েছেন তিনি নিজেই নিজের শরীরে আগুন দিয়েছিলেন। স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে তিনি নিজের শরীরে আগুন দেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএসআর/এএম

বিজ্ঞাপন

Tags:

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন