বিজ্ঞাপন

মৃত ব্যক্তির নামে দুদকের নোটিশ

July 1, 2022 | 8:47 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

খাগড়াছড়ি: অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তদন্ত করার জন্য মৃত ব্যক্তির নামে নোটিশ পাঠিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয়।

বিজ্ঞাপন

দুদক রাঙামাটি অফিসের সহকারী পরিচালক আহামদ ফরহাদ হোসেন স্বাক্ষরিত এই নোটিশ খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপসহকারী মেডিকেল অফিসার মানিক চন্দ্র শীলকে এই নোটিশ পাঠানো হয়। আগামী ৪ জুলাই রাঙামাটির দুদক কার্যালয়ে তাকে হাজির হতে বলা হয়েছে।

নোটিশে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি সংক্রান্ত রেকর্ডসহ পরিবারের সব সদস্যদের জাতীয় পরিচয়পত্র, আয়কর বিবরণী, ব্যাংক স্ট্যাটমেন্ট, স্থাবর বা অস্থাবর সম্পত্তি পরিবারের সদস্যদের নামে অর্জিত হয়ে থাকলে তার বিবরণীসহ তদন্ত কর্মকর্তার কার্যালয়ে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

হাজির না হলে অভিযোগের বিষয়ে ব্যক্তির কোন বক্তব্য নেই মর্মে ধরে নেওয়া হবে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

মানিক চন্দ্র শীল রামগড় পৌরসভার মাস্টারপাড়া এলাকায় ৪ কোটি টাকা দিয়ে ৪০ শতক সম্পত্তি, জগন্নাথ পাড়া এলাকায় ৩ কোটি টাকার সম্পত্তি, রামগড় বাজারে ৩টি দোকান প্লট এবং বিভিন্ন ব্যাংকে এফডিআরসহ অবৈধভাবে সম্পদ অর্জন করেছে মর্মে নোটিশে উল্লেখ আছে।

বিজ্ঞাপন

দুদক কর্মকর্তার দেওয়া নোটিশটি মানিক চন্দ্র শীলের সাবেক রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হলে তা গ্রহণ করেন রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এ বি এম মোজাম্মেল হক। তিনি আবার নোটিশটি পাঠান প্রয়াত ডা. মানিক চন্দ্র শীলের স্ত্রী অনিতা রাণী শীলকে।

অনিতা রানী শীল জানান, তার স্বামী গত বছর করোনায় মারা গেছেন। তাদের এক প্রতিবেশি বিপদভঞ্জন বণিকের সঙ্গে বিরোধ রয়েছে। সেই ভজনই বিভিন্ন জায়গায় নামে-বেনামে দরখাস্ত দিয়ে এবং তার স্বামী জীবিত থাকাবস্থায় মামলা-মোকদ্দমা দিয়ে হয়রানি করতো। হয়রানির অংশ হিসেবে দুদক কার্যালয়েও অভিযোগ করেছে।

বিজ্ঞাপন

তার স্বামী সরকারি কর্মচারী ছিলো উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অবৈধ সম্পদ অর্জনের কোনো সুযোগ তার স্বামীর বা তার পরিবারের কারও নেই, ছিলোও না।’

দুদক রাঙামাটি অফিসের সহকারী পরিচালক আহামদ ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘মানিক চন্দ্র শীল মারা যাওয়ার তথ্য তাদের কাছে ছিলো না। নোটিশ ইস্যু করার পর রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এ বি এম মোজাম্মেল হক তাকে বিষয়টি জানিয়েছেন। সঠিক তথ্য হাতে এলে আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন