বিজ্ঞাপন

নিজের গায়ে আগুন দেওয়া কুষ্টিয়া ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতির মৃত্যু

July 5, 2022 | 8:30 am

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নিজের শরীরে আগুন দেওয়া মো. আনিসুর রহমান (গাজী আনিস) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। গাজী আনিস নব্বই দশকে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) ভোর সোয়া ৬টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে মারা যান তিনি।

গাজী আনিসের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন বার্ন ইনস্টিটিউটের সমন্বয়কারী ডা. সামন্ত লাল সেন। তিনি জানান, গাজী আনিসের শরীরের ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। গতকাল রাতেই তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন: প্রেস ক্লাবের সামনে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

গতকাল সোমবার বিকাল ৫টার দিকে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নিজের গায়ে আগুন দিয়ে প্রথমে আত্মহত্যার চেষ্টা করে গাজী আনিস। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে বার্ণ ইনস্টিটিউটে ভর্তি করে।

বিজ্ঞাপন

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদুত হাওলাদার বলেন, বিকেলে প্রেস ক্লাবের ভেতরে নিজের গায়ে আগুন দিয়ে এক ব্যক্তি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে আমরা জেনেছি। তাকে বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। তার মুখ ও দুই হাত দগ্ধ হয়েছে। চিকিৎসকরা প্রয়োজনীয় চিকিৎসা তাকে দিচ্ছেন।

এদিকে, কুষ্টিয়ার স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে সারাবাংলার ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট সোহেল রানা জানিয়েছেন, নব্বইয়ের দশকে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে পড়তেন গাজী আনিস। ওই সময় কুষ্টিয়া বিএনপির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ছিল। তবে কলেজ পড়ার সময়ই হাজী আনিস ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। ১৯৯২ সালে তিনি কুষ্টিয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। ১৯৯৩ সালে তিনি কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব নেন। পরে তিনি আওয়ামী লীগের ২০১৪ সালের জেলা সম্মেলনে নির্বাহী সদস্যের দায়িত্ব পান।

বিজ্ঞাপন

জেলা ছাত্রলীগের আনিস-মেহেদী কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব বলেন, গাজী আনিস এক সংগ্রামের নাম। তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করতে পারেন, এটা বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছে। যারা তার এই পরিণতির জন্য দায়ী, তাদের আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানাচ্ছি।

কুষ্টিয়া জেলা ছাত্র মৈত্রীর সাবেক সভাপতি ও ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা কমিটির বর্তমান সম্পাদক কমরেড হাফিজ সরকার বলেন, গাজী আনিস আওয়ামী লীগের চরম দুঃসময়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কাণ্ডারি হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। অনেক অন্যায়-অত্যাচার সহ্য করেও সংগঠনকে আঁকড়ে ধরে রেখেছিলেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএম

বিজ্ঞাপন

Tags:

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন