বিজ্ঞাপন

ইদের আগে ফ্রিজ ব্যবস্থাপনা

July 5, 2022 | 11:26 am

অংকিতা চৌধুরী

কোরবানির ইদে ঘরের সবচাইতে উপকারী বন্ধুর নাম ফ্রিজ। এই নগর সভ্যতায় ইদুল আজহায় প্রত্যেকেই পশু কোরবানি করে মাংস হিমায়িত করেন। বিভিন্ন রকম মাংস, রান্নাবান্না সংরক্ষণে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন পড়ে ফ্রিজের। তাই ইদ আসার আগে মাংস সংরক্ষণের জন্য প্রস্তুত করে ফেলুন ফ্রিজটাকে। পরিষ্কার করে জায়গা তৈরি করে নিন, যাতে ইদের সময় মাংস রাখতে সমস্যা না হয়। ফ্রিজ পরিষ্কার করতে গিয়ে আমরা নানা রকম ভুল কাজ করে থাকি, তাতে ফ্রিজের ক্ষতি হয়ে থাকে। ফ্রিজ পরিষ্কার কিছু নিয়ম রয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক কোরবানির আগে ফ্রিজ ব্যবস্থাপনা বিষয়ে-

বিজ্ঞাপন

শুধু কোরবানির সময়ে নয়, গৃহস্থালির গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ ফ্রিজ নিয়মিত পরিষ্কার রাখা উচিত। পরিষ্কার ফ্রিজ দেখতেও ভালো লাগে আর ভালোও থাকে অনেকদিন। কিন্তু অনেকেই নানা ব্যস্ততায় দিনের পর দিন ফ্রিজ পরিষ্কার করেন না। অপরিষ্কার ফ্রিজে দুর্গন্ধ যুক্ত ব্যাকটেরিয়ায় জন্মে। তাই পরিষ্কারের শুরুতেই ফ্রিজে পুরোনো কোনো খাবার থাকলে ফেলে দিন। অনেক সময় মনের ভুলে বেখায়লে অনেক খাবার ফ্রিজেই নষ্ট হয়। অপ্রয়োজনীয় কিছু থাকলে সেটা বের করে ফেলুন। এছাড়া অনেক দিনের পুরনো মাছ-মাংস থাকলে অল্প অল্প করে রেঁধে ইদের আগেই ফ্রিজ খালি করে ফেলুন।

বিজ্ঞাপন
ইদের আগে ফ্রিজ ব্যবস্থাপনা
ইদ আসার আগে মাংস সংরক্ষণের জন্য প্রস্তুত করে ফেলুন ফ্রিজটাকে

পরিষ্কার করার আগে ফ্রিজটি বন্ধ করে নিন। ফ্রিজের বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা থাকলে খুব সহজেই ফ্রিজ থেকে বরফ আলাদা হয়ে যাবে। আপনার আর কষ্ট করে বরফ তুলতে হবে না। তারপর সব খাবার-সবজি যা যা আছে সব বের করুন। কাঁচা মাছ, মাংস ফ্রিজ থেকে বের করে একটি বালতিতে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখুন। এতে করে বরফ গলবে না, খাবার ভালো থাকবে। ফ্রিজ যদি ডি-ফ্রস্ট হয় তবে সুইচ বন্ধ করার পর বরফ গলে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর ফ্রিজের ট্রে, ড্রয়ার ও অন্যান্য অংশ খুলে বের করে নিন। হালকা কুসুম গরম পানিতে লিক্যুইড সাবার মিশিয়ে নিন। কিংবা বেকিং সোডা এবং পানি মিশিয়ে ঘন মিশ্রণও তৈরি করে নিতে পারেন। এবার একটি স্পঞ্জ বা কাপড়ে এই মিশ্রণটি লাগিয়ে পুরো ফ্রিজের ভেতরে এবং বাইরে ঘষে মুছে নিন। খুলে রাখা তাক, ড্রয়ারসহ ভেতরের অংশগুলো পরিষ্কার করুন। নরম ব্রাশ দিয়ে লেগে থাকা ময়লা তুলে ফেলুন।

বিজ্ঞাপন

এরপর একটি কাপড় হালকা গরম পানিতে ভিজিয়ে নিন। এবার বেকিং পাউডারের মিশ্রণটি ফ্রিজের ভেতর এবং বাইরে থেকে মুছে ফেলুন। ফ্রিজের তাক, ড্রয়ারগুলো ডিটারজেন্ট মেশানো হালকা গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। কাপড়টি কিছুক্ষণ পর পর হালকা গরম পানিতে ভিজিয়ে স্পঞ্জ করে ভালো করে দাগগুলো ঘষে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এর পর হালকা গরম পানিতে সামান্য লেবুর রস দিয়ে পুরো ফ্রিজের ভেতরে এবং বাইরে মুছে নিতে পারেন। এতে ফ্রিজে কোনো দুর্গন্ধ থাকলে তা চলে যাবে। এবার একটি শুকানো তোয়ালে দিয়ে ভালো করে মুছে নিন। ফ্রিজ পরিষ্কার করা হয়ে গেলে তাক, ড্রয়ারগুলো সঠিক জায়গায় বসিয়ে দিন। কিন্তু খেয়াল রাখবেন তাক, ড্রয়ারগুলো যেন শুকনো থাকে। ভেজা অবস্থায় তাক, ড্রয়ারগুলো ফ্রিজের ভেতর রাখবেন না।

বিজ্ঞাপন
ইদের আগে ফ্রিজ ব্যবস্থাপনা
কোরবানির ইদে ঘরের সবচাইতে উপকারী বন্ধুর নাম ফ্রিজ

ডিপ ফ্রিজে পুরনো রক্তের দাগ থাকলে ভিনেগার দিয়ে ভালো করে মুছে পরিষ্কার করে নিতে পারেন। ব্রাশ দিয়ে ফ্রিজের রাবারগুলো ও কোনাগুলো ঘষে ঘষে পরিষ্কার করে নিন। ফ্রিজের বাইরের অংশ পরিষ্কার করার জন্য ভিনেগার বা মাইল্ড ধরনের ক্লিনার ব্যবহার করতে পারেন। শেষে ঠান্ডা পানিতে সবকিছু ধুয়ে খুব ভালো করে মুছে নিন। খাবারের প্রতিটা বক্স, প্যাকেট, বোতল কাপড় দিয়ে মুছে তারপর ফ্রিজে তুলে রাখবেন।চালু করার ১৫ মিনিট পর খাবার রাখবেন ফ্রিজে, এর আগে নয়। এরপরেও যদি দুর্গন্ধ থাকে তাহলে এক টুকরো কাগজি লেবু কেটে ফ্রিজের এক কোনায় রেখে দিন। একদিন পর পর পরিবর্তন করে দিন। দেখবেন দুর্গন্ধ চলে গেছে।

বিজ্ঞাপন

ফ্রিজ পরিষ্কার করার পর তাপমাত্রার সুইচ চালু করে দিতে ভুলবেন না। সব সেটিং ঠিক আছে কিনা খেয়াল করবেন। গরম খাবার কখনোই ফ্রিজে রাখবেন না। ঠাণ্ডা হয়ে রুম টেম্পারেচারে এলে তবেই ফ্রিজে রাখুন। সবজি বাজার থেকে আনার পরে ধুয়ে শুকনো করে নিয়ে তারপর ফ্রিজে স্টোর করুন। এতে সবজি অনেকদিন তাজা থাকবে। ফ্রিজের ভেতর ফল ও সবজি এক সঙ্গে না রেখে আলাদা আলাদা করে রাখুন। শাকপাতা ফ্রিজে রাখার সময় আঁটি খুলে রাখুন। কাঁচা মরিচ রাখার আগে বোটা খুলে রাখুন। নয়তো পঁচে যাবে। ফ্রিজ দেয়ালের সঙ্গে লাগিয়ে রাখবেন না। দেওয়াল থেকে কিছুটা দূরত্ব বজায় রেখে ফ্রিজ রাখুন। ফ্রিজের উপর ভারি জিনিস রাখবেন না। এতে ফ্রিজের ওপর চাপ পড়ে, ফ্রিজের ক্ষতি করে থাকে।

সারাবাংলা/এসবিডিই/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন