বিজ্ঞাপন

শিক্ষক হত্যা-নির্যাতনের প্রতিবাদে বাম জোটের বিক্ষোভ

July 6, 2022 | 7:45 pm

স্পেশাল কসেপন্ডেন্ট

ঢাকা: সাভারে কলেজ শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা ও নড়াইলে অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত করার ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। এসব ঘটনার জন্য জোট নেতারা সরকারের সাম্প্রদায়িকতা তোষণ নীতি ও বিচারহীনতার সংস্কৃতিকে দায়ী করছেন।

বিজ্ঞাপন

বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতারা বলেন, নড়াইলের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসের ওপর প্রশাসনের উপস্থিতিতে নির্যাতন-লাঞ্ছনা, সাভারে শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে পিটিয়ে হত্যা— সব ঘটনাই সরকারের সাম্প্রদায়িকতা তোষণ নীতি, বিচারহীনতার সংস্কৃতির ও অব্যাহত দুঃশাসনের ফল। এই দায় সরকার এড়াতে পারে না। এসব সাম্প্রদায়িক তাণ্ডব ও অব্যাহত দুঃশাসনের বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

বুধবার (৬ জুলাই) রাজধানীর পুরানা পল্টন মোড়ে অনুষ্ঠিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে জোট নেতারা এসব কথা বলেন। নড়াইলে শিক্ষক নির্যাতন ও সাভারে শিক্ষক হত্যার প্রতিবাদে দেশব্যাপী বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই সমাবেশ আয়োজন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাম জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার। অন্যদের মধ্যে সমাবেশে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) কেন্দ্রীয় নেতা খালেকুজ্জামান লিপন, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ, মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা সীমা দত্ত, ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্ক্সবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা বিধান দাস।

সমাবেশে বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতারা বলেন, সমাজে সাম্প্রদায়িক প্রবণতা বেড়েছে। এর থেকে উত্তরণে প্রতিনিয়ত অসাম্প্রদায়িক চেতনা জাগ্রত করতে হবে। প্রশাসনের কর্তাদের দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

তারা আরও বলেন, সমাজ অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে। শিক্ষককে ছাত্র পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। এ ধরনের পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে সচেতন সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। সবখানে মানুষের অংশগ্রহণ ও গণতান্ত্রিক চর্চা নিশ্চিত করতে হবে।

জোট নেতারা এসব ঘটনার তদন্ত করে প্রকৃত দোষী ও নেপথ্যের হোতাদের খুঁজে বের করতে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন এবং দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং অধ্যক্ষকে যথাযথ মর্যাদায় দ্রুত কলেজে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেওয়ার দাবি জানান। একইসঙ্গে বিচারহীনতার বিরুদ্ধে ও সরকারের সাম্প্রদায়িকতা তোষণের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলারও আহ্বান জানান।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএইচএইচ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন