বিজ্ঞাপন

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ও সংক্রমণ বেড়েছে

August 2, 2022 | 6:11 pm

সারাবাংলা ডেস্ক

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীদের মধ্যে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে। আগের দিন করোনায় মারা গিয়েছিলেন একজন, গত ২৪ ঘণ্টায় তা বেড়ে হয়েছে তিনজন। এছাড়া সংক্রমিত রোগীদের মধ্যে শনাক্ত হয়েছেন ৩৮৭ জন, আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ৩৪৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টার হিসাবে করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও সংক্রমণের সংখ্যা দুটোই বেড়েছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীরের সই করা করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে ২৪ ঘণ্টার করোনা সংক্রমণ-মৃত্যুর তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য বলছে— গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন বুথ থেকে ৫ হাজার ৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এই সময়ে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫ হাজার ১৫টি। এসব নমুনা পরীক্ষায় ৩৮৭টিতে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হলো ২০ লাখ ৫ হাজার ৯৯৩ জনের শরীরে।

বিজ্ঞাপন

আগের দিন দেশে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষায় ৩৪৯ জনের শরীরে এই ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছিল। সে হিসাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন সংক্রমণ বেড়েছে। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে সংক্রমণ শনাক্তের হার পাওয়া গেছে ৭ দশমিক ৭২ শতাংশ। আগের দিন এই হার ছিল ৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ। সে হিসাবে আগের দিনের তুলনায় সংক্রমণের হার বেড়েছে। আর এখন পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে মোট সংক্রমণ শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭২ শতাংশ যা আগের দিনএকই ছিল।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ৬৯৩ জন। আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ১ হাজার ১১ জন। করোনা সংক্রমিতদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হওয়ার রোগীর সংখ্যা কমেছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনামুক্ত হলেন ১৯ লাখ ৪৪ হাজার ১১৪ জন। সংক্রমণ শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৬ দশমিক দশমিক ৯২ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে দেশে যে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে, এ নিয়ে করোনায় মোট মৃত্যু হলো ২৯ হাজার ২৯৫ জনের। সংক্রমণ বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৬ শতাংশ।

করোনায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ১৮ হাজার ৬৯৯ জন পুরুষ, ১০ হাজার ৫৯৬ জন নারী। শতকরা হিসেবে পুরুষের মৃত্যু হার ৬৩ দশমিক ৮৩ শতাংশ, নারী মৃত্যুর হার ৩৬ দশমিক ১৭ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৮৮০টি পরীক্ষাগারে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১৬১টি, জিন এক্সপার্ট ল্যাব ৫৭টি এবং র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ল্যাব ৬৬২টি। এসব ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টার ৫ হাজার ৭২০টিসহ মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১ কোটি ৪৬ লাখ ৮ হাজার ৬৩৭টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৯৬ লাখ ১৭ হাজার ৭৯২টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪৯ লাখ ৯০ হাজার ৮৪৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

সারাবাংলা/এসএসএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন