বিজ্ঞাপন

দিনাজপুরের উন্নয়নে ২ হাজার কোটির প্রকল্প আসছে

August 5, 2022 | 9:49 am

জোসনা জামান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বৃহত্তর দিনাজপুরের অবকাঠামো উন্নয়নে আসছে এক হাজার ৮০০ কোটি টাকার প্রকল্প। দিনাজপুর জেলার গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন শীর্ষক একটি প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে রংপুর বিভাগের দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় জেলার ২৩ উপজেলার পল্লি এলাকায় আধুনিক নাগরিক সুবিধা স্থাপন করে উন্নত যোগাযোগ নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য উপজেলা সড়কের ২৪ দশমিক ৪৪ শতাংশ ইউনিয়ন সড়কের ৪০ দশমিক ১০ শতাংশ গ্রাম সড়কের ৯ দশমিক শূণ্য ৫ শতাংশ উন্নয়ন এবং গ্রামীণ জনগণের জন্য যাতায়াত সুবিধা বৃদ্ধি, কৃষি-অকৃষি পণ্য পরিবহণ ও বাজারজাতকরণ ও শহরের সুবিধা গ্রামঞ্চল পর্যন্ত সম্প্রসারণ করা হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান সারাবাংলাকে বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে স্থানীয়ভাবে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। সার্বিকভাবে প্রকল্পটি দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ইতিবাচক অবদান রাখবে।

পরিকল্পনা কমিশনের একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সারাবাংলাকে বলেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাব পাওয়ার পর চলতি বছরের ৬ মার্চ প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভার সুপারিশ প্রতিপালন করায় প্রকল্পটি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) আগামী বৈঠকে উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়েছে। অনুমোদন পেলে ২০২৫ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এটি বাস্তবায়ন করবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি)।

বিজ্ঞাপন

প্রকল্প প্রস্তাবে বলা হয়েছে, বৃহত্তর দিনাজপুর শিল্প ক্ষেত্রে দেশের মধ্যে অন্যতম একটি অঞ্চল। সুগার মিল, জুট মিল, বৈদ্যুতিক খুঁটি নির্মাণ শিল্প, মার্শাল ডিস্টিলারী ও চা শিল্পসমৃদ্ধ পঞ্চগড় জেলায় ছোট বড় মিলিয়ে ২০০টি চা বাগান রয়েছে। ঠাকুরগাঁও জেলায় সুগারমিল, জুটমিল, রেশম কারখানা, দিনাজপুর জেলায় সুগারমিল, জুটমিল ও ১০০ এর অধিক অটো রাইস মিল রয়েছে। পঞ্চগড় জেলার নুড়ি পাথর এবং দিনাজপুর জেলার ভূগর্ভস্থ কঠিন শিলা অবকাঠামো নির্মাণে সারাদেশে ব্যবহৃত হচ্ছে। বড়পুকুরিয়ার উন্নতমানের কয়লা জ্বালানিখাতে মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করছে। দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় জেলার বিভিন্ন উপজেলায় নিরবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ প্রতিষ্ঠা, কৃষি ও শিল্পজাত পণ্যের বাজারজাতকরণের সুবিধা বৃদ্ধি করা হবে।

প্রকল্পের মূল কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে, ১৯ দশমিক ৭ কিলোমিটার উপজেলা সড়ক উন্নয়ন, ৩৮৬ দশমিক ৩ কিলোমিটার ইউনিয়ন সড়ক উন্নয়ন, ৯৩২ দশমিক ৭ কিলোমিটার গ্রাম সড়ক উন্নয়ন, ৩৮৩ মিটার গ্রামীণ সড়কে ব্রিজ, ১০২ দশমিক ৯৫ কিলোমিটার সড়ক পুনর্বাসন এবং ২৩ কিলোমিটার বৃক্ষরোপন ও পরিচর্যা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেজে/একেএম

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন