বিজ্ঞাপন

জোড়া গোলে প্রিমিয়ার লিগে রাজকীয় অভিষেক হালান্ডের

August 8, 2022 | 12:11 am

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রাক মৌসুম প্রস্তুতি ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি এর্লিং হালান্ড। তবে প্রিমিয়ার লিগে নিজের অভিষেক ম্যাচে জাত চিনিয়েছেন এই নরওয়েজিয়ান। ইপিএল চ্যাম্পিয়নদের মৌসুমের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট হামের বিপক্ষে জোড়া গোলে দলকে জিতিয়েছেন হালান্ড। আর এতেই সার্জিও আগুয়েরোর পর সিটির ইতিহাসের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে লিগে অভিষেক ম্যাচে জোড়া গোলের রেকর্ড গড়লেন হালান্ড।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের ৩৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে প্রিমিয়ার লিগে নিজের প্রথম গোল করেন হালান্ড। এরপর ৬৫তম মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের অ্যাসিস্ট থেকে সিটির এবং নিজের দ্বিতীয় গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন তিনি।

সদ্যই বুরুশিয়া ডর্টমুন্ড থেকে ম্যানচেস্টার সিটিতে নাম লিখিয়েছেন তরুণ প্রতিভাবান স্ট্রাইকার এর্লিং হালান্ড। আর এসেই নিজের জাত চেনাচ্ছেন এই নরওয়েজিয়ান স্ট্রাইকার। প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার সিটির উদ্বোধনী ম্যাচ ওয়েস্ট হাম ইউনাইটেডের বিপক্ষে। আর প্রথম ম্যাচেই বাজিমাৎ করেছেন তিনি। সিটিও জিতেছে নিজেদের প্রথম ম্যাচটি।

বিজ্ঞাপন

মৌসুমের প্রথম ম্যাচেই পূর্ণ শক্তির দল মাঠে নামান পেপ গার্দিওলা। ইনজুরির কারণে রক্ষণে যদিও ছিলেন না এমিরিক লাপোর্তা। এছাড়া নিজের সেরা একাদশই সাজিয়েছিলেন পেপ। আর হ্যামার্সদের বিপক্ষে সিটি গোটা ম্যাচ জুড়েই দেখিয়েছে আধিপত্য। বল দখলের লড়াই থেকে শুরু করে গোলের সুযোগ তৈরি এবং প্রতিপক্ষের গোলে শট নেওয়া সবদিক থেকেই এগিয়ে ছিল সিটিজেনরা।

জোড়া গোলে প্রিমিয়ার লিগে রাজকীয় অভিষেক হালান্ডের

বিজ্ঞাপন

গোটা ম্যাচের ৭৬ শতাংশ বল দখলে রেখে ১৪টি শট নেয় সিটি যদিও তার মধ্যে মাত্র দুটি শট লক্ষ্যে ছিল। গোলের সুযোগ তৈরি করার সঙ্গে সঙ্গে সহজ সুযোগ হাতছাড়াও করেছে সিটি। আর এতেই জয় এসেছে কেবল দুই গোলে।

শুরু থেকে বল দখলে রেখে আক্রমণ সাঁজাতে শুরু করে সিটি। বেশ ধৈর্য্য নিয়েই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় সিটিজেনরা। ম্যাচের ২৭ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারত সিটিজেনরা। এর্লিং হালান্ডের কাছ থেকে পাওয়া বল ডি-বক্সের ভেতর গুন্দোয়ানকে পাস দেন ডি ব্রুইন, গুন্দোয়ান বল জালে জড়ালেও তা বাতিল হয়ে যায় অফসাইডের কারণে। এর মাত্র আট মিনিট পরে হালান্ডকে ডি-বক্সের ভেতর ফাউল করে বসেন ওয়েস্ট হামের গোলরক্ষক আরিওলা। এতেই পেনাল্টি পায় সিটি। স্পটকিক থেকে ম্যাচের ৩৬তম মিনিটে গোল করে দলকে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে নেন হালান্ড। আর এতেই অভিষেক ম্যাচে গোলের দেখা পেয়ে যান এই ফরোয়ার্ড।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয়ার্ধেও খুব বেশি সুবিধা করে উঠতে পারছিল না ওয়েস্ট হাম। মাঝমাঠের নিয়ন্ত্রণ রেখে আক্রমণ করছিল সিটি। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৫ মিনিটে এসে দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় সিটি। মধ্যমাঠ থেকে ডান দিকে থাকা ডি ব্রুইনের দিকে বল পাস দেন রদ্রি। ডান দিকে ফাঁকা পেয়ে বল নিয়ে একাই আক্রমণে ওঠেন ডি ব্রুইন আর সুযোগ বুঝে বল পাস দেন ডি-বক্সে, সেখানে থাকা হালান্ড আলতো টোকায় বল জালে জড়িয়ে উল্লাসে মাতেন। সিটি লিড নেয় ২-০ গোলের। আর হালান্ডও পেয়ে যান অভিষেকে জোড়া গোল। শেষ পর্যন্ত ওই ২-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন