বিজ্ঞাপন

রমনার ওসির সম্পদ অনুসন্ধান করতে ব্যারিস্টার সুমনের রিট

August 10, 2022 | 3:48 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলামের সম্পদের অনুসন্ধান চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১০ আগস্ট) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন এ রিট দায়ের করেন।

রিটে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার, রমনার ওসি মনিরুল ইসলামকে বিবাদী করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পরে এ বিষয়ে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চে রিটটি উপস্থাপন করা হয়।

রিটের শুনানিতে আদালত বলেন, আগে এ বিষয়ে অনুসন্ধানের জন্য আগে দুদকের কাছে আবেদন করেন। আমরা ২১ আগস্ট পর্যন্ত রিট আবেদনটি স্ট্যান্ডওভার (মুলতবি) রাখছি।

বিজ্ঞাপন

এ সময় আদালতে দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান ও ওসি মনিরুল ইসলামের পক্ষে আইনজীবী মাহবুব শফিক উপস্থিত ছিলেন।

পরে আইনজীবী সুমন জানান, এটি দুদকের জন্য ফিট কেইস, একজন সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে যদি ২২ হাজার টাকার স্কেলে চাকরি করে ওনার যদি এত সম্পদ থাকে তাহলে বাংলাদেশের সৎ অফিসাররা ফ্রাস্টেইটেড হবে, এটি ছিল আমার সাবমিশন। আদালত আমার এই সাবমিশনটি নিয়ে বলেছে- আমরা আপনার সাথে একমত।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, আদালত বলেছেন যে- এভাবে চলে না, এভাবে চলতে দেওয়া যায় না।

আদালত প্রসিডিউর ফলো করতে চায়। আদালত এ বিষয়ে আমাকে দুদকে একটি আবেদন দিতে বলেছেন। এরপর দুদক যদি কোনো ব্যবস্থা নেয় বা না নেয়, যা-ই হোক না কেন তখন একটি সম্পূরক আবেদনসহ আগামী ২১ আগস্ট আদালতে যেতে বলেছেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, সোমবার (৮ আগস্ট) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ দৈনিক প্রথম আলোয় প্রকাশিত প্রতিবেদন নজরে আনেন আইনজীবী সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। এরপর আদালত এ বিষয়ে তদন্ত চেয়ে রিট করতে বলে।

এর আগে গত ৫ অগাস্ট দৈনিক ‘প্রথম আলো’ পত্রিকায় ‘ঢাকায় ওসির আটতলা বাড়িসহ বিপুল সম্পদ’ শিরোনামে ওসি মনিরুলের নামে রাজধানীর বছিলায় আটতলা বাড়ি, কেরানীগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায় একাধিক প্লট রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

ওই সংবাদে রাজধানীর মোহাম্মদপুর হাউজিং সোসাইটিতে এক মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি দখলেরও অভিযোগ রয়েছে ওসির বিরুদ্ধে।

সারাবাংলা/কেআইএফ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন