বিজ্ঞাপন

‘বিমানবন্দরের কর্মকর্তাদের ভালো ব্যবহার শেখাতে আসছে কোর্স’

August 10, 2022 | 8:50 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কর্মরত বিভিন্ন সংস্থার কর্মীদের ভালো ব্যবহারবিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করবেন বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মোহাম্মদ মফিদুর রহমান।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১০ আগস্ট) হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাত্রী সেবাবিষয়ক গণশুনানিতে বেবিচক চেয়ারম্যান গণমাধ্যমকে এ কথা জানান।

বেবিচক চেয়ারম্যান বলেন, ‘বিমানবন্দরে সাধারণ যাত্রীর সঙ্গে খারাপ ব্যবহার নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। যাত্রীদের সঙ্গে যাতে কর্মীরা ভালো ব্যবহার করেন, সেজন্য বিশেষ প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করা হবে। বিমানবন্দরে কর্মরত ইমিগ্রেশন, কাস্টমস, পুলিশ- সবাই এর আওতায় থাকবে। যাত্রীদের সম্মান যাতে ক্ষুন্ন না হয় সে বিষয়ে আমরা বদ্ধপরিকর।’

বিজ্ঞাপন

গণশুনানিতে এক যাত্রী অভিযোগ করেন, বিমান থেকে নেমে গন্তব্যে পৌঁছাতে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। বিমানবন্দরে থাকা সিএনজি বা গাড়িগুলোর কাছে যাত্রীরা এক প্রকার জিম্মি হয়ে থাকেন। স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া দিয়ে অধিকাংশ সময় গন্তব্যে পৌঁছাতে হয়।

‘বিমানবন্দরের কর্মকর্তাদের ভালো ব্যবহার শেখাতে আসছে কোর্স’

বিজ্ঞাপন

এই প্রশ্নের জবাবে মফিদুর রহমান বলেন, ‘আমরা খুব কাছ থেকে সবকিছু মনিটরিং করছি। প্রবাসীরা পরিবহন চালকদের কাছে অনেক সময় প্রতারিত হন। আমরা প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ট্রান্সপোর্টের ব্যবস্থা করতে যাচ্ছি। এটি প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। আমরা শাটল বাসের ব্যবস্থা করব। শাটল বাসে প্রবাসীরা সামান্য মূল্য দিয়ে টিকিট কাটতে পারবেন। বিমানবন্দর থেকে যাত্রীদের নিয়ে উত্তরাসহ কয়েকটি গন্তব্যে যাবে বাসটি।’

চোরাচালান থেকে সতর্ক হতে অপরিচিত কারও লাগেজ বা ব্যাগ বহন না করার জন্য সতর্ক করেন বেবিচক চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘অপরিচিত কারও কাছ থেকে লাগেজ বা ব্যাগ নেবেন না। নিলেও ভেতরে কী আছে, নিশ্চিত হয়ে নেবেন। আমাদের সিকিউরিটি সিস্টেম ভালো করা হয়েছে। অনৈতিক কাজের সঙ্গে কেউ জড়িয়ে পড়লে ছাড় পাওয়ার সুযোগ নেই।’

বিজ্ঞাপন

এদিকে শুনানিতে বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের পক্ষ থেকে প্রচণ্ড গরমের কথা উল্লেখ করা হয়। এর জবাবে বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম বলেন, ‘বিমানবন্দরে চারটি চিলার এসি আছে। যেগুলো ১১শ’ টনের। যেগুলোতে আমরা ২২-২৩ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রা মেইনটেইন করতাম। তবে আমাদের দেশে বিদ্যুতের সমস্যা হওয়ার পর দুটো বন্ধ রেখে বাকি দুটো চিলার চালু রাখছি। এখন সেগুলো ২৫ ডিগ্রিতে সেট করেছি। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য এমনটা করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে দুপুরের দিকে কিছুটা সমস্যা হতে পারে।’

পরে পুরো বিষয়টি শুনে বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান বলেন, ‘এরপর আমরা বলব- আরেকটা চিলার অন রাখতে। মোটকথা যাত্রীদের সুবিধার্থে যতটুকু তাপমাত্রা মেইনটেইন করা দরকার তা আমরা করব।’

বিজ্ঞাপন

গণশুনানিতে আরও উপস্থিত ছিলেন- বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের সদস্য (পরিচালনা ও পরিকল্পনা) এয়ার কমডোর সাদিকুর রহমান চৌধুরী, সদস্য (এটিএম) এয়ার কমডোর মো. রেয়াদাদ হোসেন, সদস্য (ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশন্স) এয়ার কমডোর শাহ কাওছার আহমদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুল মালেক, সদস্য (নিরাপত্তা) গ্রুপ ক্যাপ্টেন আবু সালেহ মাহমুদ মান্নাফী প্রমুখ।

সারাবাংলা/এসজে/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন