বিজ্ঞাপন

জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ এর কলে ৩ দিন পর প্রাণরক্ষা ১৩ জেলের

August 16, 2022 | 12:08 am

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

বাগেরহাট: ঝড়ে ইঞ্জিন বিকল হয়ে উত্তাল বঙ্গোপসাগরে একটি ফিশিং ট্রলারে তিনদিন ধরে ভাসছিল ১৩ জন জেলে। ১৩ আগস্ট থেকে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া থেকে ১৩ জন জেলেকে নিয়ে ফিশিং ট্রলার ভাসতে থাকে বঙ্গোপসাগরে। ১৪ আগস্ট রাত ১১টার দিকে সাগরে ভাসমান অবস্থায় ফিশিং ট্রলারটি সুন্দরবনের শ্যালার চর উপকূল এলাকা এলে মোবাইল নেটওয়ার্কে আওতায় আসে জেলেরা। সেখান থেকে জাতীয় জরুরি সেবা ‘৯৯৯’—এ সাহায্য চেয়ে যোগাযোগ করেন জেলেরা। এরপর অভিযান চালিয়ে তাদের সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে সুন্দরবনের শ্যালার চর এলাকা থেকে উদ্ধার করে কোস্টগার্ড।

বিজ্ঞাপন

উদ্ধার হওয়া জেলেদের সবাই সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন কোস্টগার্ড কর্মকর্তারা।

সোমবার (১৫ আগস্ট) কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন, মোংলার গোয়েন্দা কর্মকর্তা লে.কমান্ডার এম মামুনুর রহমান বলেন, রোববার (১৪ আগস্ট) রাতে জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ থেকে আসা একটি ফোন কলের মাধ্যমে জানতে পারি ইঞ্জিন বিকল হয়ে একটি ফিশিং ট্রলারে ১৩ জেলে বঙ্গোপসাগরে ভাসছেন। এরপর আমরা ভাসতে থাকা জেলেদের নিরাপদে উদ্ধার করেছি। । তারা সবাই সুস্থ আছেন। উদ্ধার করা জেলেদের বাড়ি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায়। তারা একটি ট্রলারে করে শরণখোলার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘ছোট হুজুরের দোয়া’ নামক ফিশিং ট্রলারটি ১২ আগস্ট ২০২২ ভান্ডারিয়া উপজেলা থেকে ১৩ জন জেলেসহ মাছ ধরার উদ্দেশ্যে বঙ্গোপসাগরে আসে। ১৩ আগস্ট সকাল থেকে ফিশিং  ট্রলারটি ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাগরের মধ্যে ভাসতে থাকে। পরবর্তীতে তারা ভাসতে ভাসতে শ্যালাচর এলাকায় আসে। টেলিটক ফোন দিয়ে  ৯৯৯ এ ফোন করে তাদের সমস্যার কথা জানায়।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, ফিশিং ট্রলারসহ ১৩ জেলেকে সুন্দরবনের শ্যালারচর ফরেস্ট অফিসের অদূরে নিরাপদ স্থানে এনে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

এখন ইঞ্জিন বিকল হয়ে যাওয়া ‘ছোট হুজুরের দোয়া’ নামের ফিশিং ট্রলারসহ জেলেদের বাগেরহাটের শরণখোলায় নিয়ে আসা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কোস্টগার্ডে এই কর্মকর্তা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবি

Tags: , , , , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন