বিজ্ঞাপন

উত্তরায় গার্ডার দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় হাইকোর্টে রিট

August 16, 2022 | 6:59 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর ‍উত্তরায় বিআরটিএর নির্মাণ প্রকল্পে গার্ডার দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) উত্তরার বাসিন্দা ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সেগুফতা তাবাসসুম আহমেদ হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট দায়ের করেন।

রিটে স্বরাষ্ট্র সচিব, সড়ক পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব, ঢাকার বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানির ব্যাবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) শফিকুল ইসলাম, রোডস অ্যান্ড হাইওয়ের প্রধান প্রকৌশলী একেএম মনির হোসেন পাঠান, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), ঢাকা মহানগরের পুলিশ কমিশনার, উত্তরা পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এবং উত্তরা ট্রাফিক পুলিশ বিভাগের উপ কমিশনারকে বিবাদী করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

রিট দায়েরের পর আইনজীবী সেগুফতা তাবাসসুম আহমেদ বলেন, ‘আমি উত্তরার একজন অধিবাসী। গতকাল (১৫ আগস্ট) গার্ডার দুর্ঘটনা সময় আমি সেই সড়কেই অবস্থান করছিলাম। এ রকম দুর্ঘটনা আমার সঙ্গেও হতে পারে। আজ আমি যে নিরাপদে বাসায় যাব সে বিষয়ে কোনো নিশ্চয়তা নেই। সেই সংশয় থেকে আজ আমি হাইকোর্টে রিট দায়ের করেছি। রিটে ১০ জনকে বিবাদী করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘রিটে আমি বলেছি, যে কারণে এবং যাদের দায়িত্বহীনতা ও অবহেলায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ঘটনা তদন্ত করে আদালতে একটি প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে। যাদের গাফিলতিতে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে তাদের চিহ্নিত করে এবং তাদের আদালতে বিচারের কাঠগড়ায় যেন দাঁড় করানো হয়। দেশের মানুষ যেন জানতে পারে কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। কিছুদিন পর পর এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটবে আর এর সঙ্গে জড়িতরা সব কিছুর ঊর্ধ্বে থাকবে- এটি হতে পারে না। এ ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে হবে এবং তাদরে চেহারাটা জাতির সামনে উন্মুক্ত করতে হবে।’

বিজ্ঞাপন

রিটকারী আইনজীবী বলেন, ‘এছাড়া আমার মতো লাখ লাখ সাধারণ মানুষ যারা ওই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে, সড়কে তাদের নিরাপত্তা যেন দ্রুত নিশ্চিত করা হয়। আমি রিট আবেদনে এসব বিষয় নিশ্চিত করতে আবেদন দায়ের করেছি।’

‍খুব শিগগিরই বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া এবং বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে রিটটির ওপর শুনানি হতে পারে বলে জানান রিটকারী।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/কেআইএফ/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন