বিজ্ঞাপন

এফটিপিতে ম্যাচ বৃদ্ধি, আনন্দের পাশাপাশি বিসিবি চিন্তিতও

August 18, 2022 | 7:01 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

২০২৩ সাল থেকে ২০২৭ সাল, কদিন আগে এই চার বছরের জন্য ভবিষ্যৎ সফর সূচি (এফটিপি) প্রকাশ করেছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি। বাংলাদেশের অবস্থা তাতে সোনায় সোহাগা! সূচি অনুযায়ী সব দেশের চেয়ে বাংলাদেশের ম্যাচ বেশি। একটা সময় আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার জন্য হাহাকার করতে হতো বাংলাদেশকে। সে হিসেবে এফটিপির এবারের সূচি বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য দারুণ কিছু। তবে ম্যাচ বৃদ্ধিতে চিন্তার কারণও দেখছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বিজ্ঞাপন

ব্যস্ত সূচির কারণে ক্রিকেটারদের ধকল বাড়বে। ভালো ব্যাকআপ ক্রিকেটারের দরকার পরবে। কোচিং স্টোফ বা ম্যানেজমেন্টের দায়িত্বও বেড়ে যাবে। বিষয়গুলো নিয়ে ভাবছে বিসিবি।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) হঠাৎ করেই মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ক্রিকেটারদের অনুশীলন দেখতে আসেন নাজমুল হাসান পাপন। অনুশীলনরত ক্রিকেটার, ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি এবং নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের সঙ্গে কথা বলেছেন পাপন।

বিজ্ঞাপন

পরে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হলে উঠল এফটিপিতে ম্যাচ বৃদ্ধির বিষয়টি। নাজমুল হাসান বলেন, ‘ক্রিকেটার শুধু নয়, কোচিং স্টাফদের কথা চিন্তা করুন, কেউ নিঃশ্বাস ফেলার সময় পাবে না। সবচেয়ে বেশি ম্যাচ এখন আমাদের। এখনকার এফটিপি অবিশ্বাস্য। আমরা সৌভাগ্যবান। যে পরিমাণ খেলা পেলাম, এতে অনেকগুলো ব্যাপার ফুটে ওঠে। আইসিসি বলেন বা অন্য দেশগুলো, তারা বাংলাদেশকে এখন গুরুত্ব দিচ্ছে। আমাদের সঙ্গে খেলতে চাচ্ছে।’

এফটিপির বাইরেও খেলা আছে। আইসিসি ও এসিসির টুর্নামেন্ট আছে। বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পাশাপাশি বিসিবির উদ্যোগেও সিরিজ আয়োজনের চেষ্টা করা হবে। এতো খেলার ফলে যে চ্যালেঞ্জগুলো তৈরি হতে পারে তা নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে বিসিবি, জানালেন নাজমুল হাসান।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘এফটিপির বাইরেও খেলা আছে। আলাপ-আলোচনা চলছে আরও খেলার। আইসিসি, এসিসি ইভেন্ট তো আছেই। অবিশ্বাস্য ব্যাপার। অনেক বড় চ্যালেঞ্জ এটি। আমাদের জন্য গর্বের ব্যাপার যে এত খেলা পেয়েছি, কিন্তু এটাকে ম্যানেজ করা, সামলানো অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। এটা নিয়ে বোর্ডের সবার সঙ্গে আলোচনা বসেছিলাম।’

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন