বিজ্ঞাপন

‘মাদক-জঙ্গিবাদ ঠেকাতে সাংস্কৃতিক চর্চার বিকল্প নেই’

September 22, 2022 | 9:57 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: মাদক, জঙ্গিবাদ ও অপসংস্কৃতি ঠেকাতে সাংস্কৃতিক চর্চার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে আয়োজিত শিল্পকলা পদক-২০১৯ ও ২০২০ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সংস্কৃতি সুন্দর ও মননের শিক্ষা দেয়। এজন্য নতুন প্রজন্মের মধ্যে সাংস্কৃতিক চর্চা ছড়িয়ে দিতে হবে। তাহলে দেশের সংস্কৃতি আরও উজ্জ্বল হবে।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘মাদক-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে শিল্পকলা একাডেমি দেশব্যাপী কর্মসূচি নিয়েছে। এটি আগামীতেও অব্যাহত থাকবে বলে আমরা প্রত্যাশা করি। এটি সংস্কৃতি বিকাশেও অবদান রাখবে।’

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে. এম খালিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সংস্কৃতি সচিব আবুল মনসুর।

বিজ্ঞাপন

কণ্ঠসংগীত, যন্ত্রসংগীত, নৃত্যকলা, নাট্যকলা, চারুকলা, আবৃত্তি, ফটোগ্রাফি, যাত্রাশিল্প, চলচ্চিত্র ও লোকসংস্কৃতি, সাংস্কৃতিক সংগঠক ও সৃজনশীল সাংস্কৃতিক গবেষণা-এই ১০টি ক্ষেত্রে পদকটি দেওয়া হয়ে থাকে। মনোনীতদের একটি করে স্বর্ণপদক, সনদপত্র ও এক লাখ টাকার চেক দেওয়া হয়। এর আগে সাতটি এবং ২০১৯ সাল থেকে তিনটি বাড়িয়ে মোট ১০টি ক্যাটাগরিতে প্রতি বছর 'শিল্পকলা পদক' দেয়া হচ্ছে।

দেশের শিল্প সংস্কৃতির ক্ষেত্রে জাতীয় পর্যায়ে বিশেষ অবদানের জন্য গুণীজনদের অবদানকে সম্মান ও স্বীকৃতি জানাতে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে ২০১৩ সাল থেকে ‘শিল্পকলা পদক’ প্রদান করা হয়। নীতিমালা অনুযায়ী ১৬ সদস্যের কমিটি প্রতিবছর পদকের জন্য গুণীজন নির্বাচন করে থাকেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ইউজে/এনইউ

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন