বিজ্ঞাপন

রোনালদোদের কাঁদিয়ে সেমিতে স্পেন

September 28, 2022 | 2:46 am

স্পোর্টস ডেস্ক

ঘরের মাঠে স্পেনকে আতিথ্য দেওয়ার আগে গ্রুপ পর্বের শীর্ষেই অবস্থান করছিল পর্তুগাল। অর্থাৎ উয়েফা নেশন্স লিগের সেমিফাইনালের টিকিট কাটতে স্পেনের বিপক্ষে ড্র করলে কোনো হিসাব নিকাষের প্রয়োজনই ছিল না। তবে ঘরের মাঠে স্পেনের বিপক্ষে হার এড়াতে পারেনি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরা। ম্যাচের ৮৮ মিনিটে আলভারো মোরাতার গোলে পর্তুগালকে হারিয়ে নেশন্স লিগের সেমিফাইনালের টিকিট কাটে স্পেন।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের তখন বাকি আর মাত্র মিনিট দুই। খেলা তখনও গোলশূন্য ড্র। আর দুই মিনিট এই স্কোর ধরে রাখতে পারলে সেমিফাইনালের টিকিট কাটবে পর্তুগাল। অন্যদিকে ঠিক সেই সময় গ্রুপের তিনে অবস্থান করছে স্পেন। সেমিফাইনালে যেতে হলে পর্তুগালের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই স্প্যানিশদের। ঠিক তখনই স্প্যানিশদের ত্রাতা হয়ে এলেন আলভারো মোরাতা। ম্যাচের ৮৮ মিনিটে নিকো উইলিয়ামসের ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে বল কালে জড়িয়ে স্পেনকে বুনো উল্লাসে মাতান মোরাতা। স্পেন শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয়ে সেমির টিকিট নিয়ে মাঠ ছাড়ে। আর পর্তুগালের নেশন্স লিগের যাত্রা শেষ হয় এবারের মতো।

রোনালদোদের কাঁদিয়ে সেমিতে স্পেন

বিজ্ঞাপন

ম্যাচ শেষে ঠিক এভাবেই বসে থাকতে দেখা যায় রোনালদোকে। ভাবছিলেন ম্যাচে তার করা মিসগুলোর কথা হয়তো! ম্যাচের ৪৭ মিনিটে ডিয়েগো জোটার কাছ থেকে পাওয়া বল ডি বক্সের ভেতর থেকে কেবল স্পেনের গোলরক্ষককে কাটিয়ে জালে পাঠাতে পারলেন না। ৭২ মিনিটে এসে জোটা ডি বক্সে রোনালদোর উদ্দেশ্যে আরেকটি দুর্দান্ত পাস দেন। তবে এবার রোনালদো যেন একটু বেশিই ধীর গতির ছিলেন। বল ধরে শট করার আগেই হোসে গায়া এসে বল কেড়ে নিলেন রোনালদোর পা থেকে। দারুণ এক সুযোগ হেলায় হারালেন রোনালদো। সেই সঙ্গে পর্তুগালের আরও একটি গোলের সুযোগ হাতছাড়া। আর ম্যাচের শেষ মিনিটে এসে রোনালদোই পারতেন দলকে সেমিতে তুলতে। ৯০ মিনিটে এসে সুবর্ণ সুযোগও এসেছিল তবে এবার বল পেয়ে শট করলেও তা রুখে দিলেন উনাই সিমন্স। শেষ পর্যন্ত হার এড়াতে পারলেন না রোনালদোরা।

স্পেনের বিপক্ষে ম্যাচের ২১ মিনিটের মাথায় দারুণ এক সুযোগ তৈরি করে পর্তুগাল। রোনালদোর কাছ থেকে পাওয়া বল শট নিয়েও লক্ষ্যে রাখতে পারেননি কার্ভাহালো। ২২ মিনিটের মাথায় স্পেনের ডি বক্সে বল দখলের লড়াইয়ে পরাস্ত হয়ে পড়ে যান রোনালদো। আর রেফারির কাছে আবেদন করেন পেনাল্টির তবে রেফারি তা নাকোচ করে দিলে রোনালদো কিছুটা অখুশি হন। খেলার আধা ঘণ্টা পেরোতেই ডিয়েগো জোটা বাঁ দিক থেকে বল নিয়ে কাট ইন করে ডান পায়ের দুর্দান্ত এক শট নেন কিন্তু তার শট ঝাঁপিয়ে পড়ে রুখে দেন স্পেন গোলরক্ষক।

বিজ্ঞাপন

রোনালদোদের কাঁদিয়ে সেমিতে স্পেন

৩৭তম মিনিটে এসে আরেকটি সুযোগ হাতছাড়া করে পর্তুগাল। ব্রুনো ফার্নান্দেজ দারুণ এক বল পেয়ে শট নিলেও তা গোলপোস্টের বাইরে দিয়ে গিয়ে জালের বাইরের পাশে লাগে। এভাবেই প্রথমার্ধে দারুণ সব গোলের সুযোগ তৈরি করেও ব্যর্থ হয় পর্তুগিজরা।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারতো পর্তুগাল। কিন্তু ৪৭ মিনিটে ডিয়েগো জোটার কাছ থেকে পাওয়া বল ডি বক্সের ভেতর গোলরক্ষককে একা পেয়েও জালে জড়াতে পারেননি রোনালদো। এরপর ম্যাচের ৭০ মিনিটে কার্ভাহলোর ফ্রিকিক থেকে দারুণ হেড করেন ডিয়াজ তবে তার হেড কর্নারের বিনিময়ে ফেরান স্পেনের রাইট ব্যাক কার্ভাহাল। মিনিট দুই পরে রোনালদো আরেকটি সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেন। এবার ডি বক্সের ভেতর বল পেয়েও তা নিয়ন্ত্রণে নিতে দেরি করেন সিআরসেভেন। এর মধ্যেও হোসে গায়া এসে বল কেড়ে নেন রোনালদোর কাছ থেকে।

রোনালদোদের কাঁদিয়ে সেমিতে স্পেন

বিজ্ঞাপন

পর্তুগালের গোল মিসের মহড়ার ভেতর ম্যাচের শেষ দিকে এসে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে স্পেন। ৮৮ মিনিটে নিকো উইলিয়ামসের ক্রস থেকে লাফিয়ে উঠে বল জালে জড়িয়ে স্পেনকে উল্লাসে মাতান আলভারো মোরাতা। শেষ পর্যন্ত এই ১-০ গোলের জয়ে নেশন্স লিগের সেমিনফাইলের টিকিট কাটে স্পেন। আর গ্রুপ পর্বের দুই থেকে শেষ টানতে হলো পর্তুগালকে।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন