বিজ্ঞাপন

২২ দাবি নিয়ে চবি চারুকলা শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন

November 3, 2022 | 2:58 pm

চবি করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: আবাসন ব্যবস্থা, ইন্টারনেট সংযোগ ও লাইব্রেরির সময় বাড়ানোসহ ২২ দফা দাবিতে অনির্দিষ্টকালের ক্লাস বর্জনের ডাক দিয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) চারুকলা ইনস্টিটিউট শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

গতকাল বুধবার (২ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে শিক্ষার্থীরা সারাবাংলাকে এই তথ্য জানিয়েছেন। এদিন সকাল ১১টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীতে অবস্থিত চারুকলা ইনস্টিটিউট ক্যাম্পাসে ক্লাস বর্জন করেন তারা। তাদের দাবি মেনে না নেওয়া পর্যন্ত ক্লাস বর্জন করবেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের ২২ দাবির মধ্যে আছে- শহরের শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা বাসের ব্যবস্থা ও বাসের সময়কাল বাড়ানো, খাওয়ার ব্যবস্থা, বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা, বেসিনের সুব্যবস্থা রাখা, ওয়াশরুমের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা, পাবলিক ওয়াশরুমের ব্যবস্থা করা, আর্ট ম্যাটারিয়ালনের ব্যবস্থা, লাইব্রেরিতে বই ও সময় বাড়ানো, চারুকলায় জেনারেটরের ব্যবস্থা, মেডিকল ব্যাক আপ-ফার্স্ট এইড, সাংস্কৃতিক ও খেলাধুলার পর্যাপ্ত যন্ত্রপাতি ব্যবস্থা করা, হলের ব্যবস্থা করাসহ ইত্যাদি।

বিজ্ঞাপন

মাস্টার্সের শিক্ষার্থী পার্থ রায় বলেন, ‘চারুকলা ইনস্টিটিউট প্রধান ক্যাম্পাস থেকে দূরে। এখানে শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত আবাসন ব্যবস্থা নেই। এছাড়াও আমাদের বেশকিছু দাবি আছে। সেই দাবিগুলো মেনে না নেওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জন ডাক দেওয়া হয়েছে।’

চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মাসরুল আল ফাহিম সারাবাংলাকে বলেন, ‘আমাদের অনেকগুলো কারন নিয়ে ক্লাস বর্জন করছি। প্রধান যে কারন ক্লাস রুমের অবস্থা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। আজকে (বুধবার) পরিচালকের সামনে পলেস্তরা ভেঙে পড়ছে। আরেকটু হলে মাথার উপর পড়ত। এই ঘটনা থেকে আমাদের ক্লাস বর্জনের সূত্রপাত। এই সমস্যা গুলো দেড়-দুইবছর ধরে পরিচালক স্যারের কাছে অনেকবার দরখাস্ত নিয়ে যাওয়া হয়ছে। কিন্তু কোনো সমস্যার সমাধান হয়নি। আমাদের দাবি মেনে না নেওয়া পর্যন্ত এই কর্মসূচি চালিয়ে যাব।’

বিজ্ঞাপন

চারুকলা ইনস্টিটিউট পরিচালক প্রণব মিত্র চৌধুরী সারবাংলাকে বলেন, ‘আমরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনায় বসব। সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।’

সারাবাংলা/সিসি/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন