বিজ্ঞাপন

হলুদ দলের ‘স্ট্যান্ডিং কমিটি’র মেয়াদ শেষ হলেও নির্বাচন নেই ৪ বছর

November 12, 2022 | 6:31 pm

চবি করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ‘বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায়’ উদ্বুদ্ধ প্রগতিশীল শিক্ষকদের সংগঠন হলুদ দলের নীতিনির্ধারণী পর্ষদ ‘স্ট্যান্ডিং কমিটি’ নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। সাধারণ শিক্ষকরা জানিয়েছেন, কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে ২০১৯ সালের এপ্রিল মাস। চার বছর পার হলেও স্ট্যান্ডিং কমিটির নির্বাচন বা পুনর্গঠন নিয়ে দায়িত্বশীলদের কোনো সাড়াশব্দ নেই। নিজেদের নেতৃত্ব ধরে রাখতেই তাদের এই কৌশল বলে অভিযোগ উঠেছে।

বিজ্ঞাপন

এ অবস্থায় চবি হলুদ দলের মেয়াদোওীর্ণ কমিটির সদস্যদের অধীনে আর কোনো নির্বাচন চান না হলুদ দলের সমর্থক শিক্ষকরা। এরই মধ্যে দ্রুত সময়ের মধ্যে স্ট্যান্ডিং কমিটির নির্বাচনের জন্য ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক বরাবর চিঠি দিয়েছেন হলুদ দলের ২০০ শিক্ষক।

শনিবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে হলুদ দলের স্ট্যান্ডিং কমিটির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সেকান্দর চৌধুরী সারাবাংলাকে চিঠি পাবার কথা নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, হলুদ দলের নীতি নির্ধারণী পর্ষদ 'স্ট্যান্ডিং কমিটি'র সর্বশেষ নির্বাচন ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। স্ট্যান্ডিং কমিটি গঠিত হয় দুই বছরের জন্য। হলুদ দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ২০১৯ সালের ৬ এপ্রিল কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। এরপর চার বছর পার হতে চললেও নতুন করে নির্বাচনের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না।

চিঠিতে শিক্ষকরা অভিযোগ করেছেন, ২০১৭ সালে নির্বাচিত ১৫ জন সদস্যের মধ্যে ৬ জন সদস্যই নিষ্ক্রিয়। স্বাভাবিক অবসর, লিয়েন, শিক্ষা ছুটিসহ নানা কারণে তারা দায়িত্ব পালন করতে পারছেন না। ফলে স্ট্যান্ডিং কমিটি অকার্যকর হয়ে আছে।

বিজ্ঞাপন

জানতে চাইলে হলুদ দলের স্ট্যান্ডিং কমিটির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সেকান্দর চৌধুরী বলেন, ‘গতকাল (শুক্রবার) সন্ধ্যায় একটা দরখাস্ত পেয়েছি। এই দরখাস্ত যাচাই-বাছাই করা হবে। পরবর্তীতে কমিটির সভায় এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।’

হলুদ দলের স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. নির্মল কুমার সাহা সারাবাংলাকে বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা এর মধ্যে আলোচনা করেছি। স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যদের তালিকা হালনাগাদ করার কথা ছিল। দ্রুতই সিদ্ধান্ত হবে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/সিসি/ইআ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন