বিজ্ঞাপন

দেশ ও জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধ থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

November 24, 2022 | 2:10 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নবীন বৈমানিকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশ ও জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধ থাকতে হবে; যেটা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব তার ভাষণেও বলেছেন। এটাই হচ্ছে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সকালে যশোর বিমান বাহিনী একাডেমিতে ‘বাংলাদেশ বিমান বাহিনী একাডেমির রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ (শীতকালীন) ২০২২’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। তার আগে পাসিং আউট কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিমান বাহিনীর ৮১তম বাফা কোর্স ও ডিরেক্ট অ্যান্ট্রি কোর্সের কমিশন প্রাপ্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যশোর বিমান বাহিনী একাডেমির প্যারেড গ্রাউন্ডে যান প্রধানমন্ত্রী। এরপর পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ শেষে বক্তব্য দেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অনেক দেশে যখন দুর্ঘটনা-দুর্বিপাক হয়, আমরা কিন্তু তাদের সহযোগিতা করি। আবার আমাদের দেশে যখন ঝড়-বন্যা বা কোনোরকম দুর্ঘটনা ঘটে বিমান বাহিনীর সদস্য বা সশস্ত্র বাহিনীর সব সদস্যরা জনগণের পাশে দাঁড়ায়, জনগণের সেবা করে। এটাই হচ্ছে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ যে, জনগণের আস্থা বিশ্বাস। যেকোনো একটা যুদ্ধে জয়ী হওয়ার জন্য এটা একান্তভাবে দরকার।’

বিজ্ঞাপন

আমাদের দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। জাতির পিতা বলেছিলেন, ইনশাআল্লাহ এমন একদিন আসবে আমাদের একাডেমির নাম শুধু দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় নয় সমগ্র দুনিয়াতে সম্মান অর্জন করবে। তাই আজকে আমরা দেশে আমাদের দেশে অন্যান্য দেশ থেকেও আসে, তারা ট্রেনিং নিচ্ছে। যেমন, নেপাল-ফিলিস্তিন-জাম্বিয়া থেকে এখানে এসেছে তারা ট্রেনিং নিয়েছে বলেও জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশ এবং দেশমাতৃকার প্রতি এবং দেশের জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধ থাকতে হবে। যেটা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব তার ভাষণেও বলেছেন যে, দেশ ও দেশের জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধ এটাই হচ্ছে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ। কাজেই আমি আশা করি, আমাদের নবীন যারা আজকে থেকে নতুন কর্মস্থলে যোগ দেবে তাদের জন্য এই কথাটা অনেক প্রযোজ্য।’

বিজ্ঞাপন

সবার সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধুত্বের নীতির কথা মনে করিয়ে দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারপরও দক্ষতার দিক থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আমাদের সবধরনের উৎকর্ষতা বজায় রেখে চলতে হবে এবং সেই আত্মবিশ্বাস নিয়ে চলতে হবে।’ এসময় বিমান বাহিনীর সদস্যদের কল্যাণে আওয়ামী লীগ সরকারের নেওয়া নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন এবং নবীন কর্মকর্তাদের সাফল্য কামনা করেন।

যশোরে প্রধানমন্ত্রী, আওয়ামী লীগের জনসভায় নেতাকর্মীদের ঢল

বিজ্ঞাপন

বিমানবাহিনীর প্রশিক্ষণের গুরুত্ব তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সঙ্গে চলতে হয়। সেজন্য প্রশিক্ষণের কথা সবসময় মনে রাখতে হবে। প্রশিক্ষণের ওপর সবসময় গুরুত্ব দিতে হবে। প্রশিক্ষণ উৎকর্ষতা বৃদ্ধি করে এই কথাটা সব সময় মনে রাখতে হবে।’

করোনা মহামারিসহ বৈশ্বিক যুদ্ধ পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা অনেক কাজ আমরা করে যাচ্ছিলাম। তবে কোভিড-১৯ এবং ইউক্রেন যুদ্ধ স্যাংশান, যার কারণে সারা বিশ্বব্যাপী মন্দা দেখা দিয়েছে। তবে এই মন্দা থেকে যেন আমরা উত্তোরণ ঘটাতে পারি সেই বিষয়েও আমরা যথেষ্ট সজাগ এবং আমাদের অর্থনীতি এখনো গতিশীল আছে, নিরাপদ আছে, সেইটুকু অন্তত আমি বলতে পারি।’

বিজ্ঞাপন

এদিকে, বিকেলে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দিবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর মধ্য দিয়ে করোনাকালের ঘরবন্দির ঘেরাটোপ থেকে জনতার কাতারে সরকার ও দলের বার্তা পৌঁছে দিতে ভোটের মাঠে নামলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সারাবাংলা/এনআর/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন