বিজ্ঞাপন

জানুয়ারি থেকেই এলএনজি দেবে ব্রুনাই, বছরে আসবে ১.৫ মেট্রিক টন

November 24, 2022 | 6:04 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ব্রুনাই দারুসসালাম থেকে বছরে ১ থেকে ১.৫ মেট্রিক টন এলএনজি কিনতে পারবে বাংলাদেশ। আর তা ২০২৩ সালের শুরু থেকেই পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। দীর্ঘ মেয়াদি চুক্তির আওতায় আমদানি করতে যাওয়া তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস- এলএনজি সহযোগিতা আরও দীর্ঘ করতে চায় সরকার বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) ব্রুনাই-এ বাংলাদেশ ও ব্রুনাই দারুসসালামের মধ্যে জ্বালানি সহযোগিতা নিয়ে অনুষ্ঠিত দ্বি-পাক্ষিক সভায় এ বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এবং ব্রুনাই-এর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের জ্বালানি উপমন্ত্রী ইয়ং মুলিয়া দাতো সেরি পাদুকা আয়ং হাজী মাতসাটেজা বিন সোকাইয়া নিজ নিজ দেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন। তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) এবং অন্যান্য পেট্রোলিয়াম পণ্য সরবরাহে দীর্ঘমেয়াদী সহযোগিতার প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা হয়।

বিজ্ঞাপন

বৈঠক শেষে সংবাদ ব্রিফিং এ সব তথ্য জানানো হয়। সেখানে আরও বলা হয়, বর্তমান প্রেক্ষাপটে ব্রুনাই থেকে গড়ে ২১০,০০০ মেট্রিক টন ডিজেল ডেফার্ড পেমেন্টে আমদানির বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। এ সব বিষয়ে নতুন করে চুক্তি করতে হবে।

সে চুক্তির মেয়াদ হতে পারে ১০ থেকে ১৫ বছর। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, সহযোগিতার ক্ষেত্র বাড়াতে ফলপ্রসু আলোচনা হয়েছে। ব্রুনাই জ্বালানি সহযোগিতা ও সহযোগিতার ক্ষেত্র বাড়াতে সম্মত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ব্রুনাই দারুসসালাম থেকে ২০১৪, ২০১৫ ও ২০১৬ সালে মোট ৩২৫৯৭৫ মেট্রিক টন ডিজেল আমদানি করেছে। ১০০% নিজস্ব রিফাইনারি থাকার শর্তের জন্য ব্রুনাই-এর কোম্পানি PB Trading Sendirian Berhad, Brunei Darusalam হতে ২০১৬ সালের পরে আমদানি করা সম্ভব হয়নি। বর্তমানে এই শর্ত শিথিল করা হয়েছে। উল্লেখ্য যে, গত ১৬ অক্টোবর ২০২২ তারিখে বাংলাদেশ ও ব্রুনাই দারুস সালামের মধ্যে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস এবং অন্যান্য পেট্রোলিয়াম সরবরাহে সহযোগিতার জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ব্রুনাই-এর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে জ্বালানি বিষয়ক স্থায়ী সচিব ইয়ং মুলিয়া আযহার বিন হাজী ইয়ায়া, জ্বালানি বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ নিজাম বিন ইজমি, পেট্টোলিয়াম অথরিটির পরিচালক আড্রিয়াম ওয়াং কাই মিং, জ্বালানি বিভাগের জ্বালানি অংশীদারিত্ব ব্যবস্থাপনা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক হাজী মো. জাকি বিন হাজী হাসানুল আসসারি ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

প্রতিনিধি দলে বাংলাদেশের পক্ষে জ্বালানি বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. মাহবুব হোসেন, বিপিসির চেয়ারম্যান এবিএম আযাদ, পেট্টোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান, রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক যাবেদ চৌধুরী ও ব্রুনাই– এ নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নাহিদা রহমান সুমনা উপস্থিত ছিলেন।

সারাবাংলা/জেআর/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন