বিজ্ঞাপন

কোরিয়ার বিপক্ষে উরুগুয়েকে জিততে দিল না গোলপোস্ট

November 24, 2022 | 8:57 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

ম্যাচের তখন ৯০ মিনিটের খেলা চলছে। কোরিয়ার ডি বক্স থেকে কিছুটা দূরে বল পেয়ে বুলেট শট নেন ফেদেরিখো ভালভার্দে। বুলেট গতিতে বল গোলপোস্টে লেগে বেরিয়ে যায়। বলটা একটু ডান দিকে সরে গেলেও জালে গিয়েই জড়াত কেননা দক্ষিণ কোরিয়ার গোলরক্ষক তখন লাফিয়ে পড়েও বলের নাগাল পাননি। ভালভার্দের এই গোলটিই গড়ে দিত পারত ম্যাচের ভাগ্য। তবে তা হয়নি। আর ম্যাচের প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে এসেও গোলপোস্ট বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল উরুগুয়ের জন্য। ভালভার্দের কর্নার থেকে ভেসে আসা বল লাফিয়ে উঠে দারুণ হেড করেন ডিয়েগো গডিন। গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও বল গোলপোস্টে লেগে ফিরে আসে গডিনের হেডার। আর এতেই এগিয়ে যাওয়া হয়নি উরুগুয়ের। গোলপোস্টের এই দুই বাধা পেরিয়ে আর গোল করা হয়নি সুয়ারেজ-নুনেজ-কাভানিদের। আর তাতেই শেষ পর্যন্ত গোলশূন্য ড্র'তে শেষ হয় উরুগুয়ে-দক্ষিণ কোরিয়ার লড়াই।

বিজ্ঞাপন

দক্ষিণ কোরিয়া ও উরুগুয়ের মধ্যকার ম্যাচের শুরু থেকেই দুই দল আক্রমণ পাল্টা আক্রমণ করে খেলতে থাকে। তবে শুরুর দিকে আধিপত্য ছিল কোরিয়ানদেরই। এরপর অবশ্য নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে আক্রমণ সাজাতে শুরু করে উরুগুয়ে। প্রথম ৩০ মিনিটে দুই দলই বেশ কয়েকটি আক্রমণ ও পাল্টা আক্রমণ করে। কিন্তু কেউই কারো রক্ষণ দূর্গ ভাঙতে পারেনি।

কোরিয়ার বিপক্ষে উরুগুয়েকে জিততে দিল না গোলপোস্ট

বিজ্ঞাপন

ম্যাচে সবচেয়ে বড় সুযোগ আসে ৩৩তম মিনিটে কোরিয়ার কাছে। ডান দিক থেকে ডি বক্সের ভেতর মাটি কামড়ানো আসা পাসে পা ছোঁয়ালেই বল জালে জড়াত। কিন্তু সেই শট লক্ষ্যে রাখতে পারননি জুং হোয়ং। যেন বেশি উত্তেজিত হয়ে বল গোলপোস্টের উপর দিয়ে বাইরে পাঠিয়ে দেন কোরিয়ান স্ট্রাইকার।

এই আক্রমণ থেকে কোনো রকমে বেঁচে আবারও নিজেদের গুছিয়ে নিতে কিছুটা সময় নেয় উরুগুয়ে। এরপর দারুণ এক আক্রমণে কর্নার পেয়ে যায় উরুগুয়ে। কর্নার থেকে ডি বক্সের ভেতর ভাসানো বল পাঠান ফেদেরিখো ভালভার্দে। লাফিয়ে উঠে সেই বল হেড করেন ডিয়েগো গডিন কিন্তু তা সাইড বারে লেগে ফিরে আসে। ফলে গোল থেকে বঞ্চিত হয় উরুগুয়ে। শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হলে গোলশূন্য থেকে বিরতিতে যায় দু'দল।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই গোলের জন্য মরিয়া হয়ে খেলতে শুরু করে দুই দল। সেই অনুযায়ী আক্রমণও সাজায় দুই দল। দারুণ এক সুযোগ আসে উরুগুয়ের সামনে। ম্যাচের ৬৩তম মিনিটে প্রতি আক্রমণে বল পেয়ে কোরিয়ার ডি বক্সে ঢুকে পড়েন ডারউইন নুনেজ। তবে শেষ পর্যন্ত আর শট করতে পারেননি তিনি। বল আটকে দেয় কোরিয়ান গোলরক্ষক। এরপরের মিনিটে লুইস সুয়ারেজকে তুলে মাঠে নামানো হয় এডিনসন কাভানিকে।

কোরিয়ার বিপক্ষে উরুগুয়েকে জিততে দিল না গোলপোস্ট

বিজ্ঞাপন

মিনিট পাঁচেক পরেই দারুণ এক শট করেন কাভানি কিন্তু তার শট রুখে দেন কোরিয়ার এক ডিফেন্ডার। ম্যাচের ৭১ মিনিটে সনের বাড়ানো বলে সুযোগ তৈরি হলে উরুগুয়ের গোলরক্ষক সার্জিও রোশেত নিজের জায়গা ছেড়ে বেড়িয়ে এসে হেড করে বিপদ মুক্ত করেন। ম্যাচের ৭৪ মিনিটে গোলের পাওয়ার লক্ষ্যে একসঙ্গে দুই পরিবর্তন করেন দক্ষিণ কোরিয়ার কোচ জর্জ বেন্তো।

এরপর ম্যাচের শেষ দিকে এসে ৯০তম মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে ভালভার্দের নেওয়া শট সাইড বারে লেগে প্রতিহত হয়। নির্ধারিত সময় শেষে উরুগুয়ের গোলরক্ষক বড় ভুল করে ফেলেন। ডি বক্সের সামনেই থাকা কোরিয়ার এক খেলোয়াড়কে বল পাস দিয়ে দেন। তবে তার থেকে পাওয়া বল লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন হিউং মিন সন। এতেই শেষ পর্যন্ত আর গোল হয়নি। ম্যাচ শেষ হয় গোলশূন্য ড্র'তে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন