বিজ্ঞাপন

১৩ দফা দাবিতে চবির হলে বিক্ষোভ

November 27, 2022 | 7:55 pm

চবি করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: খাবারের মান বৃদ্ধিসহ ১৩ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) স্যার এ এফ রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা। এসময় হলের ফটকে তালা লাগিয়ে দেন তারা।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২৭ নভেম্বর) দুপুর ২টার দিকে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি ও আবাসিক শিক্ষকের আশ্বাসে ৩টার দিকে তালা খুলে দেওয়া হয়।

শিক্ষার্থীদের ১৩ দফা দাবির মধ্যে আছে— খাবারের মান বৃদ্ধি করা, আর্সেনিক সমস্যা দূর করা, মশা নিধনের ব্যবস্থা করা, শৌচাগার সংস্কার করা, পর্যাপ্ত পানির ফিল্টার দেওয়া, ডাইনিংয়ে লোকসংখ্যা বাড়ানো, কক্ষের আসবাবপত্র সংস্কার করা, খেলার মাঠ সংস্কার করা, টেবিল টেনিস বোর্ড দেওয়া, ওয়াইফাই সমস্যা দ্রুত সমাধান করা ও সময় মতো দৈনিক পত্রিকা দেওয়া।

বিজ্ঞাপন

শারীরিক শিক্ষা এবং ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান মিঠুন বলেন, ‘হলে প্রায় ৩০০’র বেশি শিক্ষার্থী রয়েছে। পানির ফিল্টার রয়েছে মাত্র একটি। বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার দশ মিনিটের মধ্যেই পানির অভাব দেখা দেয়। এছাড়াও হলের খাবারের মান খুবই নিম্ন। খাবার মুখে দেওয়া যায় না। শৌচাগারের দরজা ভাঙা পানিতেও আর্সেনিক। মশার নিধনের কোনো ব্যবস্থা নেই।’

তিনি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় এ এফ রহমান হল দীর্ঘদিন ধরে চ্যাম্পিয়ন হয়ে আসছে। আগামী বছরের শুরুতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শুরু হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের খেলাধুলার সরঞ্জাম সরবরাহ করা হয়নি। হল কর্তৃপক্ষকে কয়েকবার বিষয়টি জানানোর পরেও কেউ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তাই আমরা তালা দিয়েছি।’

বিজ্ঞাপন

ইতিহাস বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ইকরামুল হক বলেন, ‘আবাসিক হলের শিক্ষার্থীদের যে ধরনের সুযোগ সুবিধা পাওয়ার কথা তা নাম মাত্র পায়। এই সমস্যাগুলো দ্রুত সমাধান করতে হবে। যৌক্তিক দাবিগুলো যদি দ্রুত সময়ের মধ্যে না মানা হয়, তাহলে আমরা কঠোর আন্দোলন যাব।’

সহকারী প্রক্টর হাসান মুহাম্মদ রোমান বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের এই দাবিগুলোর যৌক্তিক। এরইমধ্যে খেলাধুলার সরঞ্জাম কেনা শুরু করা হয়েছে। আগামীকাল থেকে পর্যায়ক্রমে সবগুলো দাবি সমাধান করা হবে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/সিসি/এনএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন