বিজ্ঞাপন

সুইজারল্যান্ডকে হারিয়ে নকআউটে ব্রাজিল

November 28, 2022 | 11:54 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

কাতার বিশ্বকাপে দ্বিতীয় দল হিসেবে বিশ্বকাপের শেষ ষোলো নিশ্চিত করল ব্রাজিল। নেইমারহীন ব্রাজিল খেলতে নামে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে। তবে সুইসদের জমাট বাধা রক্ষণ কিছুতেই ভাঙতে পারছিল না সেলেকাওরা। প্রথমার্ধ গোল শূন্য শেষ হলেও দ্বিতীয়ার্ধে প্রথমে ভিনিসিয়াস জুনিয়র ভাঙেন ডেডলক তবে বাতিল হয় অফসাইডের কারণে।  তবে ম্যাচের ৮৩তম মিনিটে রদ্রিগোর পাস থেকে কার্লোস ক্যাসেমিরো দুর্দান্ত এক গোল করে ব্রাজিলকে এগিয়ে নেন। আর এই গোলেই জয় নিশ্চিত করে সেলেকাওরা। এতেই কাতার বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্ব নিশ্চিত করে ব্রাজিল।

বিজ্ঞাপন

কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ সুইজাল্যান্ড। রক্ষণ সামলে ব্রাজিলকে প্রথমার্ধে আটকে দিয়েছে। কয়েকটি সুযোগ মিসে সেলেকাওরাও পারেনি ম্যাচে লিড নিতে। স্টেডিয়াম ৯৪৭-এ বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় মাঠে নামে গ্রুপ এইচ এর দুই দল ব্রাজিল ও সুইজারল্যান্ড। ম্যাচের প্রথমার্ধে গোল করতে পারেনি কোনো দলই।

সুইজারল্যান্ডকে হারিয়ে নকআউটে ব্রাজিল

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের ১২ মিনিটের সময় দারুণ এক সুযোগ তৈরি করে ব্রাজিল। মধ্যমাঠের একটু সামনে বল পেয়ে ডান দিকে রিচার্লিসনের কাছে বল বাড়ান। বল নিয়ে ডি বক্সে ঢুকে পেছনে ভিনিসিয়াসকে উদ্দেশ্য করে বল পাস দেন রিচা তবে ভিনিসিয়াসের কাছে বল পৌঁছানোর আগে সুইজারল্যান্ড ডিফেন্ডার এলভেদি বল রুখে দেন। মিনিট পাঁচেক পর ভিনিসিয়াসের কাছ থেকে বল পেয়ে বাঁ দিক থেকে আক্রমণ ওঠেন পাকুয়েতার। আর ডি বক্সে দারুণ এক ক্রস করেন পাকুতেয়া। তবে ডি বক্সের ভেতর বলে পা ছোঁয়াতে পারেননি রিচার্লিসন।

২৭তম মিনিটে ডান দিক থেকে আক্রমণে উঠে বাঁ দিকে থাকা ভিনিসিয়াসের উদ্দেশ্যে দুর্দান্ত এক ক্রস করেন রাফিনহা। তবে বল ঠিকমতো শট নিতে পারেননি ভিনি। তাতেই সুইস গোলরক্ষক আটকে দেন বল। আর সহজ সুযোগ হাতছাড়া হয় ব্রাজিলের। ভিনিসিয়াসের মিসের চার মিনিট পর দারুণ এক বল পেয়ে দূরপাল্লার শট নেন রাফিনহা। তবে তার শট গোলপোস্টের ওপর দিয়ে বেরিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

সুইজারল্যান্ডকে হারিয়ে নকআউটে ব্রাজিল

শেষ দিকে কর্নার থেকে সুযোগ পায় সুইজারল্যান্ড তবে এলভেদির হেড ব্রাজিল রক্ষণে আটকে যায়। এতেই বিপদমুক্ত হয় সেলেকাওরা। আর প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্যতে।

বিজ্ঞাপন

গোলের সুযোগ নষ্ট আর ম্যাড়মেড়ে প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই লুকাস পাকুয়েতাকে তুলে নিয়ে রদ্রিগোকে মাঠে নামান তিতে। আর এরপরেই বাড়ে আক্রমণের ধারও। তবে কিছুতেই ডেডলক ভাঙতে পারছিল না ব্রাজিল। উল্টো ম্যাচের ৫৩ মিনিটে আক্রমণে যায় সুইজারল্যান্ড। ডান দিকে সাজানো আক্রমণ দারুণ ডিফেন্সে রুখে দেন থিয়াগো সিলভা। এরপর ম্যাচের ৫৪ মিনিটে কর্নার আদায় করে সুইজারল্যান্ড। রুবেন ভ্যারগাসের নেওয়া কর্নার সহজেই ক্লিয়ার করে দেন অ্যালিসন বেকার। ম্যাচের ৫৬ মিনিটে ডিফেন্সের ভুলে বিপদের শঙ্কা জেগেছিল। তবে তা ক্লিয়ার করে দেন অ্যালিসন বেকার।

সুইজারল্যান্ডকে হারিয়ে নকআউটে ব্রাজিল

বিজ্ঞাপন

এরপর ম্যাচের ৫৭তম মিনিটে প্রতি আক্রমণে ওঠেন ভিনিসিয়াস। তবে ভিনিসিয়াসের দারুণ এক পাস ডি বক্সের ভেতর পা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন রিচার্লিসন। ম্যাচের ৬৪ মিনিটে এসে ডেডলক ভাঙেন ভিনিসিয়াস। মধ্যমাঠ থেকে দারুণ এক থ্রু পাস পেয়ে বাঁ দিক থেকে আক্রমণে উঠে দুর্দান্ত এক গোল করেন ভিনি। তবে বল পাস আসার আগে রিচার্লিসন অফসাইডে থাকেন আর সে কারণেই বাতিল হয় গোলটি।

ভিনিসিয়াসকে মধ্যমণি করে একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে ব্রাজিল। তবে কিছুতেই শেষটা টানতে পারছিল না সেলেকাওরা। ম্যাচের ৬৮তম মিনিটে এসে ডি বক্সের ঠিক পাশে বাঁ দিকে ফাউল হন ভিনি তবে সেখান থেকে গোল করতে পারেনি তারা। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে আবারও আক্রমণে গেলেও তা থেকে গোল বের করতে ব্যর্থ হয় ব্রাজিল। ম্যাচের ৭৫ মিনিটে বাম প্রান্ত থেকে ফ্রি কিক পায় ব্রাজিল। তবে রদ্রিগোর নেওয়া সেই ফ্রি কিক চলে যায় পোস্টের অনেক ওপর দিয়ে। ম্যাচের ৭৯ মিনিটে অ্যাটাকে যায় সুইজারল্যান্ড। তবে তা থেকে কোন বিপদ ঘটাতে পারেনি তারা।

সুইজারল্যান্ডকে হারিয়ে নকআউটে ব্রাজিল

সময় গড়াচ্ছিল আর চিন্তা বাড়ছিল ব্রাজিলিয়ানদের ওপর। অবশেষে ৮৩তম মিনিটে এসে ভাঙে সুইস রক্ষণ। রদ্রিগো দুর্দান্ত এক বল দেন ক্যাসেমিরোকে। আর ডি বক্সের ভেতর থেকে অসাধরণ শটে বল সুইজারল্যান্ডের জালে জড়ান ক্যাসেমিরো। ম্যাচের ৭ মিনিট বাকি থাকতে ১-০ গোলে লিড নেয় সেলেকাওরা। শেষ দিকে আরও বেশ কয়েকবার আক্রমণ সাজিয়েও আর গোলের দেখা পায়নি ব্রাজিল। এতেই ১-০ ব্যবধানের জয়ে মাঠ ছাড়ে সেলেকাওরা। আর নিশ্চিত করে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ড।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন