বিজ্ঞাপন

ইউরোপে পোশাক রফতানি প্রবৃদ্ধির শীর্ষে বাংলাদেশ

December 1, 2022 | 8:11 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ইউরোপে দেশের পোশাক রফতানিতে বইছে সুবাতাস। চলতি বছরের প্রথম আট মাসে (জানুয়ারি-আগস্ট) ইউরোপে পোশাক রফতানি প্রবৃদ্ধিতে শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ থেকে ইউরোপের বাজারে পোশাক রফতানি ৪৫ দশমিক ২৬ শতাংশ বেড়েছে। যেখানে সারাবিশ্ব থেকে পোশাক রফতানি প্রবৃদ্ধি মাত্র ২৬ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

প্রথম আট মাসে ইউরোপের বাজারে বাংলাদেশ ১৫ দশমিক ৩৭ বিলিয়ন ডলারের পোশাক রফতানি করেছে, যেখানে সারাবিশ্ব থেকে ইউভুক্ত দেশগুলোর পোশাক আমদানির পরিমাণ ৬৭ দশমিক ১৮ বিলিয়ন ডলার।

ইউরোপীয় পরিসংখ্যান সংস্থা ‘ইউরোস্ট্যাট ইইউ’র আমদানির সবশেষ পরিসংখ্যানে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

বিজ্ঞাপন

তথ্যমতে, চলতি বছরের প্রথম আট মাসে বাংলাদেশ থেকে ইউরোপে পোশাক রফতানি হয়েছে ১৫.৩৭ বিলিয়ন ডলার। ২০২১ সালে এই আয় ছিলো ১০.৫৮ বিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ চলতি বছরে ইউরোপে পোশাক রফতানি বেড়েছে ৪.৭৯ বিলিয়ন ডলার (৪৭৯ কোটি ডলার)। বছর ব্যবধানে ইউরোপে পোশাক রফতানি ৪৫ দশমিক ২৬ শতাংশ।

তথ্যে দেখা যাচ্ছে, যেখানে বাংলাদেশ থেকে পোশাক রফতানি বেড়েছে ৪৫.২৬ শতাংশ, সেখানে পুরো পৃথিবী থেকে বেড়েছে ২৬.৭৭ শতাংশ। ইউরোপীয় ইউনিয়নে শীর্ষ পোশাক রফতানিকারক দেশ চীন। এই সময়ে চীন থেকে ইউরোপের পোশাক রফতানি ২৬.৫৯ শতাংশ বেড়েছে। দেশটির পোশাক রফতানি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮.৮৫ বিলিয়ন ডলার।

বিজ্ঞাপন

অপরদিকে, তুরস্ক ইউরোপীয় ইউনিয়নের তৃতীয় বৃহত্তম পোশাকের উৎস। দেশটি থেকে পোশাক রফতানি বেড়েছে ১৬.৯৭ শতাংশ। রফতানি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮.১৭ বিলিয়ন ডলার। একই সময়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নে প্রথম সাত মাসে ভারত, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, পাকিস্তান, মরোক্কো, শ্রীলঙ্কা ও ইন্দোনেশিয়া থেকে পোশাক রফতানি বেড়েছে যথাক্রমে ২৮.৮৫, ৪২.২১, ২৫.৭৫, ৩১.৩৪, ১৬.১৬, ১৬.২৪ ও ৩৫.৪১ শতাংশ।

তবে একক মাস হিসাবে আগস্টে বাংলাদেশের পোশাক প্রবৃদ্ধি ৫৫. ৮৭ শতাংশ, যেখানে চীনের ৩৮.২০, ভারতের ৪৪.৩৮, কম্বোডিয়ার ৪৫.৪০ শতাংশ, ভিয়েতনাম ৪২.৬৬ শতাংশ, পাকিস্তান ৪৮ দশমিক ৩৯ শতাংশ ও ইন্দোনেশিয়ার ৬৩.৩১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজিএমইএর পরিচালক মহিউদ্দিন রুবেল সারাবাংলাকে বলেন, পোশাক রফতানিতে ইউরোপে বাংলাদেশের অবস্থান সব সময় ভালো ছিলো। প্রবৃদ্ধিতেও ভালো অব্স্থানে আছে। ইউরোস্ট্যান্টের যে তথ্য দেওয়া হয়েছে তা আগস্ট পর্যন্ত। তারপরই বিশ্বে অর্থনৈতিক মন্দা শুরু হয়েছে। ফলে সামনের দিকে ইউরোপের বাজারে বাংলাদেশে পোশাক রফতানি কমতে পারে।

সারাবাংলা/ইএইচটি/এনইউ

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন