বিজ্ঞাপন

মুক্তিযোদ্ধা দিবস পালন করল সেক্টর কমান্ডারস্ ফোরাম

December 1, 2022 | 10:58 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ‘মুক্তিযোদ্ধা দিবস’ পালন করেছে সেক্টর কমান্ডারস্ ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ’ ৭১।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা ও বিভাগীয় সদরে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। পহেলা ডিসেম্বরকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস হিসেবে সরকার স্বীকৃতির দাবিতে সেক্টর কমান্ডারস্ ফোরাম সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন বহু বছর ধরে দিনটি পালন করে আসছে। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ২০২১ সালে দিনটিকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস হিসেবে ঘোষণার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রBfলয়ে জোর সুপারিশ পেশ করেছে। কিন্তু আজও পর্যন্ত এ সংক্রান্ত কোনো সরকারি ঘোষণা আসেনি।

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের এক সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠান শেষে ‘শিখা চিরন্তর’ বেদীতে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দিনটি কেন্দ্রীয়ভাবে নানা আনুষ্ঠানিকতা শুরু করে সংগঠনটি।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে ফোরামের মহাসচিব বিশিষ্ট লেখক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা হারুন হাবীব বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে এবং যে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগে ১৯৭১ সালের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, জাতির সেই শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণে একটি দিবস পালনের যৌক্তিকতা আছে। আমরা আহ্বান জানাই যেন দিনটি যথাযথ সরকারি স্বীকৃতি লাভ করে এবং যুগ যুগ ধরে দিবসটি পালিত হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘দিনটির সরকারি স্বীকৃতির বিলম্ব অত্যন্ত দুঃখজনক।’

বিজ্ঞাপন

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন ফোরামের কার্যনির্বাহী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহা. নুরুল আলম, সহ সভাপতি স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত চিকিৎসক বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডা. আমজাদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ পাটোয়ারী এবং ফোরামের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তরের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোহাম্মদ আসালত এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা মির্জা মুজিবুর রহমান।

সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের মহান আত্মত্যাগকে যুগ যুগ ধরে স্মরণ করতে সেক্টর কমান্ডারস্ ফোরামের সকল অঙ্গ সংগঠন সারা দেশে দিনটি পালন করছে। এ সব অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধারা ছাড়াও নতুন প্রজন্মের বহু সংখ্যক মানুষ অংশ নেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ইএইচটি/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন