বিজ্ঞাপন

জননিরাপত্তা আশঙ্কায় নয়া পল্টনে সমাবেশ করতে দেবে না পুলিশ

December 7, 2022 | 6:03 pm

সিনিয়র করসেপন্ডেন্ট

ঢাকা: জননিরাপত্তা বিঘ্নিত আশঙ্কায় রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির সমাবেশ করতে দেবে না বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক। তিনি বলেন, নয়া পল্টন এলাকায় সর্বোচ্চ ৮০ হাজার লোক সমাগম হতে পারে। কিন্তু বিএনপি ১০ লাখ লোকের সমাগম করার কথা বলেছে। এত লোকের জায়গা কোথায় দেবে? এত লোকের নিয়ন্ত্রণ বিএনপিরও থাকবে না, পুলিশেরও থাকবে না। তখন তারা বিভিন্ন সড়কে ছড়িয়ে পড়বে এবং নাশকতা করতে পারে। এজন্য আমরা নয়া পল্টনে সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কমিশনার এসব কথা বলেন।

কমিশনার বলেন, ‘আমরা বার বার বলেছি সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ করার জন্য। সেখানে এর আগেও তারা সমাবেশ করেছে। আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলা লীগ ও সব শেষ ছাত্রলীগ সমাবেশ করেছে। ওনাদের করতে কি অসুবিধা তা জানা নেই পুলিশের। আমরা রাস্তায় কোনোভাবেই সমাবেশ করতে দেব না। তারা করতে চাইলে টঙ্গি ইজতেমা ময়দান, পূর্বাচল বাণিজ্য মেলার মাঠ এমনকি মিরপুর কালসী মাঠেও সমাবেশ করতে পারেন তারা।’

বিজ্ঞাপন

আজ কেন পুলিশ বাধা দিয়েছে? জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, ‘১০ ডিসেম্বর সমাবেশ করতে চেয়েছে তারা। আমাদের কাছে তথ্য ছিল আজ বিএনপি নেতাকর্মীরা চাল, ডাল, লাকরি, চুলা নিয়ে নয়া পল্টনে সমাবেশ করতে এসেছে। সড়ক বন্ধ করে অবস্থান নিয়েছে। এজন্য আমরা অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছি। এর পর বিএনপি নেতাকর্মীরা ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। তখন পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে।’

বিএনপির অভিযোগ পুলিশের গুলিতে তাদের একজন কর্মী নিহত হয়েছে- এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, ‘কে মারা গেছে তা জানা নেই। ভিডিও ফুটেজ আমি দেখি নাই। পরবর্তী সময়ে ডিসি মিডিয়া আপনাদের জানাবে এসব বিষয়ে।’

বিজ্ঞাপন

আপনারা সমাবেশ করতে না দিলে ১৪৪ ধারা জারি করে দিতে পারতেন। কিন্তু তা না করে নেতাকর্মীদের ওপর গুলি ও টিয়ারশেল ছুঁড়ছেন। এটা কতটা যৌক্তিক? এ প্রসঙ্গে কমিশনার বলেন, ‘৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দিয়েছি। তারা যদি সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ না করার কথায় জানায়, তাহলে আমরা আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবো।’

ঢাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা কি এতটাই অবনতি হয়েছে যে, ঢাকার রাস্তায় আপনারা সোয়াত টিম নামিয়েছেন? সোয়াত টিম তো জঙ্গি প্রতিরোধে কাজ করেন? এছাড়া সড়কে অত্যাধুনিক বোম ডিসপোজাল কার এমইউ সিক্সটিন নামিয়েছেন? জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, ‘আমাদের কাছে তথ্য ছিল, নেতাকর্মীরা বস্তায় ভরে ককটেল এনেছে।’ ককটেলের জন্য কি এমইউ সিক্সটিন নামাতে পারেন সড়কে? এর উত্তরে কমিশনার গোলাম ফারুক বলেন, ‘নাশকতার আশঙ্কায় এটি নামানো হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

নয়া পল্টনে বিএনপি এর আগেও সমাবেশ করেছে? এবারে কি এমন হয়েছে যে, বিএনপি সমাবেশ করতে পারবে না? এর জবাবে পুলিশ কমিশনার বলেন, ‘ওই সমাবেশগুলো ছিল কয়েক হাজার লোকের। কিন্তু বিএনপি এবার নিজেই বলেছে তারা ১০ লাখ লোকের সমাগম ঘটাবেন। এজন্য বাধা দেওয়া হচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

Tags:

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন