বিজ্ঞাপন

২৫ লাখ জাল টাকা উদ্ধারের মামলায় খালাস ২

January 24, 2023 | 5:10 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর পুরানা পল্টনে ‘হোটেল বন্ধু’ থেকে ২৫ লাখ জাল টাকা উদ্ধারের মামলায় দুইজনকে খালাস দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) বিকেলে ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ সপ্তম-এর বিচারক তেহসিন ইফতেখারের আদালত দুই আসামির উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

বিজ্ঞাপন

মামলায় খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- ‘হোটেল বন্ধু’র ম্যানেজার হাসান মজুমদার ও ওই হোটেলের বাবুর্চি সোহেল রানা।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর বিকাল সোয়া ৪টার দিকে ফকিরাপুলের মাছ বাজারের পশ্চিম পাশের গলিতে রাস্তার ওপর অভিযান চালিয়ে তাদের ২৫ লাখ টাকার জাল নোটসহ গ্রেফতার করা হয়। রিমান্ড শেষে আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। ২০১৭ সালের ১২ এপ্রিল ৫ মাস কারাভোগ শেষে আসামিরা উচ্চ আদালতের আদেশে জামিনে মুক্তি পান।

বিজ্ঞাপন

২০১৭ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর মামলাটি তদন্তের পর মতিঝিল জোনাল টিম ডিবি (পূর্ব) এর পুলিশের এসআই দেওয়ান উজ্বল হোসেন আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

তবে আসামিরা অভিযোগ করে বলেন, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর সকাল সোয়া ১১টায় পুরানা পল্টনের ‘হোটেল বন্ধু-এর তৃতীয় তলায় ডিবির মতিঝিল জোনাল টিমের পরিদর্শক তপন কুমার ঢালী ও এসআই দেওয়ান উজ্জ্বল হোসেনের নেতৃত্বে সাদা পোশাকের একটি টিম প্রবেশ করেন। এরপর তারা হোটেলের কাউন্টারে বাবুর্চি সোহেল রানাকে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে হাতকড়া পরিয়ে দেয়। হোটেলের ম্যানেজার হাসান মজুমদার বিষয়টি জানতে চাইলে তাকেও হাতকড়া পরিয়ে দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

ডিবির টিমটি এসময় হোটেলের সিসি ক্যামেরা দেখতে পেয়ে সেটি বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দেয়। এরপর তাদের হাতকড়া পরিহিত অবস্থায় একটি গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়া হয় মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে। সেখানে মতিঝিল জোনাল টিমের সহকারী কমিশনার জুয়েল রানা তাদের কাছ থেকে ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করেন তারা। পরে এসআই দেওয়ান উজ্জ্বল হোসেন তাদের আরেকটি কক্ষে ডেকে নিয়ে বলেন, ৩ লাখ টাকা না দিলে তাদের বিরুদ্ধে জাল টাকার মামলা দেওয়া হবে।

ওই দিন রাতেই মতিঝিল থানায় পরিদর্শক তপন কুমার ঢালী বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে ২৫ লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধার দেখিয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এআই/এনইউ

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন