বিজ্ঞাপন

পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়া শিক্ষার্থীর ‘আত্মহত্যা’

February 9, 2023 | 7:28 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

নেত্রকোনা: জেলা শহরের নাগড়া এলাকায় এক কলেজ শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত শিক্ষার্থী বিপুল দাস (১৯) এইচএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে শহরের নাগড়া সাহাপাড়া এলাকা থেকে এ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নেত্রকোনা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খন্দকার শাকের আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মৃত বিপুল দাস শহরের নাগড়া সাহাপাড়া এলাকার শ্যামল দাসের ছেলে। সে আবু আব্বাছ ডিগ্রি কলেজ থেকে ২০২২ সালে মানবিক শাখায় এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেন। যার ফল প্রকাশ পায় গতকাল বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি)। ফলাফলে এক বিষয়ে অকৃতকার্য হয় বিপুল।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এইচএসসি পরীক্ষায় ফেল করার পর বিপুল দাস আত্মহত্যা করেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ার বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি সে। ফেল করে বন্ধুদের লজ্বায় কীভাবে নিজের দুঃসংবাদের কথা প্রকাশ করবে- এই ভেবে হয়তো এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে পরিবারের স্বজনদের অভিমত।

পুলিশ ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিপুল দাস এইচএসসিতে ফেল করার খবর পাওয়ার পর থেকে পরিবারের কারও সঙ্গে কথা বলছিল না। বৃহস্পতিবার সকালে তার ব্যবসায়ী বাবা দোকানে যান। মা প্রতিবেশী একজনের বাসায় যান। দুপুরের দিকে মা ঘরে এসে বিপুলের ঝুলন্ত লাশ দেখেন। পরে খবর দেওয়া হলে পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে।

বিজ্ঞাপন

আবু আব্বাছ ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক নাজমুল কবীর সরকার বলেন, ‘পরীক্ষায় ফেল করলে জীবন কারও থেমে যায় না। তা ছাড়া বোর্ডে খাতা চ্যালেঞ্জ করারও সুযোগ আছে। কিন্তু কিছু না বুঝেই সে এমন ঘটনা ঘটিয়ে ফেলল। বিষয়টি খুবই হৃদয়বিদারক। এমন ঘটনা যেন আর কারও ক্ষেত্রে না ঘটে।’

এ বিষয়ে ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ বলেন, ‘বিষয়টি খুবই মর্মান্তিক। পরীক্ষায় আশানুরূপ ফল করতে না পারা মানে জীবন শেষ হয়ে যাওয়া নয়। স্বজনদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন