বিজ্ঞাপন

সারাবিশ্বে একই তারিখে ঈদ উদযাপনের আহ্বান মুসলিম উম্মাহ’র

May 4, 2018 | 7:08 pm

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা: ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) ঘোষণা অনুযায়ী, চন্দ্র মাসের হিসাবে সারাবিশ্বে একই তারিখে রোজা পালন এবং একই তারিখে ঈদ উদযাপন করার আহ্বান জানিয়েছে মুসলিম উম্মাহ নামে একটি ধর্মীয় সংগঠন। সংগঠনটির মুখপাত্র বলছেন, ওআইসি’র নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সারাবিশ্বের সব মুসলিম দেশগুলো একই তারিখে রোজা পালন ও ঈদ উদযাপন করলেও বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং ভারত তা মানছে না।

মুসলিম উম্মাহ নামে ওই সংগঠনটি শুক্রবার (৪ মে) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করে। সংগঠনটির মহাসচিব ডা. এম. এ. কাশেম ফারুকী এতে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন।

বিজ্ঞাপন

সংগঠনটির সভাপতি মুফতী সাইয়্যেদ আবদুছ ছালামের সভাপতিত্বে অবসরপ্রাপ্ত এয়ার কমডোর ড. সৈয়দ জিলানী মাহবুবুর রহমান, ওআইসি ফিকহ একাডেমিতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. সাইয়েদ আব্দুল্লাহ আল-মারুফসহ আরও অনেকে প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখেন।

মূল প্রবন্ধ পাঠ করে কাশেম ফারুকী বলেন, ইসলামি শরিয়াহ্ তথা কুরআন-সুন্নাহ’র আলোকে ১৯৮৬ সালে ওআইসি’র ফিকহ একাডেমি সিদ্ধান্ত নেয়- বিশ্বের কোনো একটি দেশে নতুন চাঁদ দেখা গেলে, ওই হিসাবে সব মুসলমান দেশগুলো ইবাদত করবে। একই তারিখে রোজা পালন ও একই তারিখে ঈদ উদযাপন করা হবে। ওআইসি’র ফিকহ একাডেমির এই সিদ্ধান্ত মুসলমান বিশ্বের ৫৭টি দেশের স্থায়ী সদস্যদের ঐক্যমতের ভিত্তিতেই গ্রহণ করা হয়। কিন্তু বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ভারত এই সিদ্ধান্ত এখনো মানছে না। এতে মুসলমানরা না জেনে ভুল ইবাদত করছে।

বিজ্ঞাপন

ওই বছর ওআইসি’র ফিকহ একাডেমি দুইটি সিদ্ধান্ত নেয়। কোনো একটি দেশে নতুন চাঁদ দেখা গেলে সব মুসলিমকে অবশ্যই সে অনুযায়ী আমল করতে হবে। নতুন চাঁদের উদয়ের স্থলের ভিন্নতা ধর্তব্য নয়, কারণ রোজা শুরু ও শেষের নির্দেশটি বিশ্বের সবার জন্য প্রযোজ্য। অন্য সিদ্ধান্তটি হলো, নতুন চাঁদ দেখা গ্রহণ করা আবশ্যক। তবে এ ক্ষেত্রে জ্যোতির্বিজ্ঞানের হিসাব ও পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সাহায্য নেওয়া যেতে পারে। এতে মহানবীর (সা.) হাদিস ও বৈজ্ঞানিক সত্যকে যথাযথ বিবেচনায় রাখা হবে।

ওআইসি ফিকহ একাডেমিতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. সাইয়েদ আব্দুল্লাহ আল-মারুফ বলেন, আসন্ন রমজান মাস থেকেই ওআইসি’র সিদ্ধান্ত অনুযায়ী একই তারিখে রোজা পালন ও ঈদ উদযাপনের আহ্বান জানাচ্ছি। এ জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আবেদন জানাচ্ছি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেআইএল/এটি/

** দ্রুত খবর জানতে ও পেতে সারাবাংলার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন: Sarabangla/Facebook

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন