বিজ্ঞাপন

ক্যাম্প ন্যুতে বার্সার জালে রিয়ালের চার গোল

April 6, 2023 | 4:19 am

স্পোর্টস ডেস্ক

কোপা দেল রে’র সেমিফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ১-০ গোলের জয় পেয়েছিল বার্সেলোনা। ফাইনালে উঠতে তাই রিয়ালের সামনে পাহাড়সম বাধা ডিঙাতে হত। ক্যাম্প ন্যুতে সেটাই করে দেখাল অল লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। করিম বেনজেমার টানা দ্বিতীয় হ্যাটট্রিকে ৪-০ গোলে বার্সাকে উড়িয়ে কোপা দেল রে’র ফাইনালে উঠল রিয়াল।

বিজ্ঞাপন

লা লিগায় বার্সার চেয়ে ১২ পয়েন্ট পিছিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। লা লিগা এক প্রকার শেষই বলা চলে রিয়ালের। স্প্যানিশ কাপের প্রথম লেগে ঘরের মাঠে বার্সার কাছে হার। সেই সঙ্গে টানা তিনটি এল ক্লাসিকো হেরে ব্যাকফুটে রিয়াল। ঠিক সেই সময় রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলোত্তি বলেন, ‘এবার আমাদের জয়ের পালা।’ ক্যাম্প ন্যুতে কেবল জিতলই না রিয়াল। বার্সাকে গুঁড়িয়ে দিয়েই জিতল রিয়াল।

বুধবার রাতে সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে ভিনিসিয়াস জুনিয়র গোল করে প্রথমে রিয়ালকে এগিয়ে নেন। এরপর দ্বিতীয়ার্ধে করিম বেনজেমার হ্যাটট্রিকে বার্সাকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে অল হোয়াইটসরা। দুই লেগ মিলিয়ে ৪-১ গোলের অগ্রগামিতায় ২০১৪ সালের পর প্রথমবার প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে উঠল রিয়াল।

শেষবার রিয়াল মাদ্রিদের কোনো স্ট্রাইকার ক্যাম্প ন্যুতে হ্যাটট্রিকের দেখা পেয়েছিলেন ১৯৬৩ সালে। হাঙ্গেরির কিংবদন্তি ফেরেঙ্ক পুস্কাসের পর ২০২৩ সালে এসে করিম বেনজেমা হ্যাটট্রিকের দেখা পেলেন বার্সার মাঠে।

বিজ্ঞাপন

আগামী ৬ মের ফাইনালে আনচেলত্তির দল খেলবে ওসাসুনার বিপক্ষে। শেষ চারে দুই লেগ মিলিয়ে আথলেতিক বিলবাওকে ২-১ গোলে হারিয়ে ২০০৫ সালের পর প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে উঠেছে ওসাসুনা।

ক্যাম্প ন্যুতে ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়তে পারত রিয়াল তবে বেঁচে যায় এডুয়ার্ড কামাভিঙ্গার দৃঢ়তায়। চতুর্থ মিনিটে রিয়ালের বক্সের ডান দিকে বাইলাইনের কাছাকাছি থেকে গাভির শট ডিফেন্ডার ডাভিড আলাবার হাতে লাগলে পেনাল্টির আবেদন করেন বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা, তবে রেফারির সাড়া মেলেনি। দশম মিনিটে বক্সে রবের্তোর শট আটকে দেন আলাবা।

এরপর ম্যাচে প্রথম আক্রমণের স্বাদ পায় রিয়াল। ডান দিক থেকে দূরের পোস্টে ভিনিসিয়াসের উদ্দেশ্যে বাড়ানো বল ছুটে গিয়ে বিপদমুক্ত করেন রোনাল্ড আরাহো। চতুর্দশ মিনিটে প্রথমবার গোলরক্ষকের পরীক্ষা নিতে পারে বার্সেলোনা। আলেহান্দ্রো বাল্দের ক্রসে রাফিনহার হেড ঠেকান থিবো কোর্তোয়া। ২৬তম মিনিটে একে অন্যকে ধাক্কা মেরে হলুদ কার্ড দেখেন ভিনিসিয়াস ও গাভি।

বিজ্ঞাপন

প্রথমার্ধের নির্ধারিত সময় শেষে যোগ করা অতিরিক্ত সময়ের খেলা চলছিল তখন। রবার্ট লেভান্ডোফস্কির দুর্দান্ত শট দারুণ দক্ষতায় ফেরান থিবো কোর্তোয়া। আর সেখান থেকেই প্রতি আক্রমণে ওঠে রিয়াল। ডি বক্সে বেনজেমার সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে ভিনিসিয়াসের শট বার্সেলোনা ডিফেন্ডার জুলেস কুন্দে আটকানোর চেষ্টা করলেও গোললাইন পেরিয়ে যায়। ব্যাস রিয়াল মাদ্রিদ এগিয়ে যায় ১-০ গোলের ব্যবধানে।

বিরতি থেকে ফিরেই ম্যাচের পাঁচ মিনিটের মাথায় লিড দ্বিগুণ করেন করিম বেনজেমা। ডান দিক থেকে বল ধরে এগিয়ে লুকা মদ্রিচ পাস দেন বক্সে। জোরাল শটে লক্ষ্যভেদ করেন বেনজেমা। দুই লেগ মিলিয়ে রিয়াল তখন ২-১ গোলে এগিয়ে। এর মিনিত দুই পরে বালদের দুর্দান্ত শট রুখে রিয়ালের লিড ধরে রাখেন কোর্তোয়া।

তবে লিড বেশি সময় ২-০ থাকেনি। ডি বক্সের ভেতর বার্সা মিডফিল্ডার ফ্র্যাঙ্ক কেসিয়ে ভিনিসিয়াস জুনিয়রকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পটকিক থেকে ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে ব্যবধান ৩-০ করেন বেনজেমা। তখনও ক্যাম্প ন্যুতে প্রত্যাবর্তনের স্বপ্ন বুনছিল বার্সা সমর্থকরা। তবে ৮০তম মিনিটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করে সে স্বপ্নভঙ্গ করেন বেনজেমা। ভিনিসিয়াসের পাস ধরে মার্ক আন্দ্রে তার স্টেগেনকে ফাঁকি দেন এই ফরোয়ার্ড। আর তাতেই লক্ষ্যভেদ। রিয়াল মাদ্রিদ এগিয়ে যায় ৪-০ গোলের ব্যবধানে।

এই নিয়ে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে হ্যাটট্রিকের দেখা পেলেন ফ্রেঞ্চ স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা। সবশেষ দুই ম্যাচে নিজেদের জাল অক্ষত রেখে ১০ গোল করল রিয়াল। সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে গত রোববার লা লিগার ম্যাচে রিয়াল ভাইয়াদলিদকে ৬-০ গোলে হারানোর পথে হ্যাটট্রিক উপহার দিয়েছিলেন বেনজেমা।

বিজ্ঞাপন

রিয়ালের লিগ শিরোপা ধরে রাখার আশা ফিকে হয়ে গেছে এরই মধ্যে। ২৭ রাউন্ড শেষে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার চেয়ে তারা পিছিয়ে আছে ১২ পয়েন্টে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তারা টিকে আছে ভালোভাবেই। এই মাসে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে খেলবে চেলসির বিপক্ষে।

সারাবাংলা/এসএস

Tags: , , , , , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন