বিজ্ঞাপন

ভারতকে হারিয়ে ‘অপরাজিত’ বাংলাদেশ ফাইনালে

December 21, 2017 | 1:32 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

বিজ্ঞাপন

মেয়েদের সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলে মুখোমুখি হয়েছিল দুই শিরোপা প্রত্যাশী বাংলাদেশ ও ভারত। নিজেদের তিনটি ম্যাচ জিতেই ফাইনালে নামবে বাংলার বাঘিনীরা। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের রাউন্ড রবিন লিগে টানা তৃতীয় জয় তুলে নিয়েছে গোলাম রব্বানী ছোটনের দল। ফাইনালের আগে ভারতকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে লাল-সবুজের দলটি।

এক ম্যাচ হাতে রেখে প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আগেই বাংলাদেশ-ভারত ফাইনাল নিশ্চিত করে। বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ম্যাচটি ছিল এগিয়ে থেকে ফাইনালের মঞ্চে নামার লড়াই। খাতা-কলমে ম্যাচটি ছিল নিয়ম রক্ষার। মর্যাদার লড়াইয়ের ম্যাচটি শুরু হয় সকাল সাড়ে ১১টায়।

বিজ্ঞাপন

আগামী রোববার ফাইনালের নামবে এই দুই দলই। তার আগে ভারতকে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসের পারদটা বেশ বাড়িয়ে রাখলো কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের ছাত্রীরা।

অনূর্ধ্ব-১৫ সাফে ভারতকে হারানোর মধ্য দিয়ে বয়সভিত্তিক ফুটবলে টানা তিন জয় তুলে নিলো বাংলাদেশের কিশোরীরা। এর আগে ২০১৫ সালে তাজিকিস্তানে অনুষ্ঠিত এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ আঞ্চলিক চ্যাম্পিয়নশিপে গ্রুপ পর্বে ভারতকে ৩-১ গোলে হারায় বাংলাদেশ। একই টুর্নামেন্টের ফাইনালে সেই ভারতকেই ৪-০ গোলে হারিয়ে জোড়া জয় পূর্ণ করে লাল-সবুজের মেয়েরা। এবার ঢাকায় হ্যাটট্রিক জয় পূর্ণ করেই ছাড়লো টাইগ্রেসরা। ফাইনালে এই ভারতকে হারাতে পারলেই এক হালি পরাজয় উপহার দেওয়া হবে ভারতকে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে ফাইনালে ওঠার পথে নেপালকে ৬-০ ও ভুটানকে ৩-০ গোলে হারায় বাংলাদেশ। অন্যদিকে ভুটানকে ৩ ও নেপালের জালে ১০ গোল দিয়েছে ভারত। আগের দুই ম্যাচে ১৩ গোল করা ভারত এবারের আসরে এই প্রথম গোল হজমের সঙ্গে প্রথম হারের স্বাদও পেল। অন্যদিকে নিজেদের জাল অক্ষত রেখে প্রতিপক্ষের জালে তিন ম্যাচে মোট ১২টি গোল করল বাংলাদেশ।

চোট পেলে বাংলাদেশের কোচ সাজেদা খাতুনকে ২৫তম মিনিটে তুলে নেন। বদলি হিসেবে নামেন আনুচিং মগিনি। ৩২তম মিনেটে তার গোলেই লিড নেয় বাংলাদেশ। মনিকা চাকমার কর্নারে আনুচিংয়ের হেড ভারতের জালের ঠিকানা খুঁজে পায় (১-০)।

বিজ্ঞাপন

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে মিডফিল্ডার শামসুন্নাহারকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় বাংলাদেশ। স্পট কিক থেকে শামসুন্নাহার লক্ষ্যভেদ করলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় বাংলাদেশের তরুণীরা (২-০)। প্রথমার্ধে এই স্কোরেই এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৩তম মিনিটে আনাই মোগিনির অ্যাসিস্ট থেকে ব্যবধান ৩-০ করেন মনিকা চাকমা। ম্যাচের বাকি সময়টা আর কাজে লাগাতে পারেনি ভারত। তেমনি স্কোর বাড়িয়ে নিতে পারেনি বাংলাদেশ। ৩-০ গোলের জয় পাওয়ায় অপরাজিত বাংলাদেশ ফাইনালে নামবে এই ভারতের বিপক্ষেই।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআরপি/২১ ডিসেম্বর ২০১৭

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন