বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রামে গ্রেফতার জামায়াত-শিবিরের ২১০ নেতা-কর্মী কারাগারে

June 24, 2018 | 6:47 pm

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীর মোটেল সৈকত থেকে গ্রেফতার হওয়া জামায়াত-শিবিরের ২১০ নেতা-কর্মীকে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (২৪ জুন) বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম মেহনাজ রহমান তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন বলে সারাবাংলাকে জানিয়েছেন নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, আসামিদের হাজির করা না হলেও সংশ্লিষ্ট নথি পাঠানোর পর আসামিদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

এর আগে শনিবার রাতে গ্রেফতারের পর আসামিদের কোতয়ালি থানায় রাখা হয়েছিল। রোববার (২৪ জুন) সকালে তাদের দামপাড়া পুলিশ লাইনে রাখা হয়। আদালতের নির্দেশ আসার পর বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোতয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন। তিনি আরও জানিয়েছেন, সোমবার (২৫ জুন) আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ড আবেদন করা হবে।

বিজ্ঞাপন

শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর স্টেশন রোডে পর্যটন করপোরেশন পরিচালিত মোটেল সৈকতে ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ‘পারাবার’ নামে একটি সংগঠন। সংগঠনটি শিবিরের সাংস্কৃতিক ইউনিট বলে তথ্য পেয়ে সেখানে অভিযান চালায় কোতয়ালি থানা পুলিশ। অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি ও আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আ জ ম ওবায়দুল্লাহ, ছাত্রশিবির চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণের সভাপতি রফিকুল হাসান, সেক্রেটারি ইমরানুল হক, অফিস সেক্রেটারি গাজী সাখাওয়াত হোসেন প্রকাশ হাসনাত এবং বায়তুল মাল সম্পাদকসহ ২১০ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শীর্ষ নেতাদের বাইরে গ্রেফতার হওয়া কম-বেশি সবাই শিবিরের সাথী এবং বিভিন্ন কমিটির সদস্য বলে জানিয়েছেন মোহাম্মদ মহসিন।

বিজ্ঞাপন

ঈদ পুর্নমিলনীর নামে রাষ্ট্রবিরোধী কাজে লিপ্ত হওয়া এবং নাশকতার পরিকল্পনা নিতে গোপন বৈঠকের অভিযোগে কোতয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) গোলাম ফারুক বাদী হয়ে ২২৫ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় ২১০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

সারাবাংলা/আরডি/এটি

বিজ্ঞাপন

** দ্রুত খবর জানতে ও পেতে সারাবাংলার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন: Sarabangla/Facebook

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন