বিজ্ঞাপন

অভিজ্ঞতা প্রযোজনায়, হচ্ছেন পরিচালক

June 25, 2018 | 9:10 pm

রেজওয়ান সিদ্দিকী অর্ণ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

চলচ্চিত্রাঙ্গনে যেন আনন্দের রোল। কারণ আবারও শাকিব-বুবলী জুটির নতুন সিনেমার ঘোষণা আসছে। মঙ্গলবার (২৬ জুন) ঘোষণা করা হবে দুটি নতুন সিনেমার নাম। এরই মধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে ‘একটি প্রেম দরকার মাননীয় সরকার’ নামটি। শোনা যাচ্ছে ছবিটি  পরিচালনা করবেন প্রযোজক সেলিম খান।

আর এখানেই তৈরি হয়েছে উৎকণ্ঠা, প্রশ্ন। প্রযোজক সেলিম খান হঠাৎ করেই এসেছেন চলচ্চিত্র প্রযোজনায়। তার প্রযোজনা জীবনের এক বছর পার না হতেই তিনি হতে চলেছেন চলচ্চিত্র পরিচালক। আর সুপারস্টার শাকিব খান হতে যাচ্ছেন তার পরিচালিত সিনেমার নায়ক!

বিজ্ঞাপন

সেলিম খান কী কখনো ক্যামেরায় চোখ রেখেছেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে সেলিম খান বলেন, ‘আমি কখনো পরিচালনা করিনি। কিন্তু সিনেমা প্রযোজনা করে নির্মাণ সম্পর্কে আমার কিছুটা অভিজ্ঞতা হয়েছে। সেই অভিজ্ঞতাই কাজে লাগাতে চাই।’

প্রযোজকের এমন কথা শুনে অনেকেই মুখ টিপে হাসছেন কিন্তু প্রকাশ্যে কোনো কথা বলছেন না। পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার এই বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবে দেখার অনুরোধ করেছেন। গুলজার মনে করেন আগে কখনও পরিচালনার সাথে জড়িত না থেকেও চলচ্চিত্র পরিচালনা করা যায়। এক্ষেত্রে তিনি প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়ের উদাহরণ দিয়ে বলেন, ‘সত্যজিৎ রায় আগে কখনো ছবি পরিচালনা না করেই প্রথম ছবিতে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছেন। তেমনি বাংলাদেশের তৌকির আহমেদ, শাহনেওয়াজ কাকলী আগে পরিচালনা করেন নি। কিন্তু তারা দু’জনেই  জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। এটা আসলে মেধার ব্যাপার। সেলিম খানের মেধা থাকলে চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে পারবেন।’


এরইমধ্যে সেলিম খানের আবেদন গিয়ে জমা পড়েছে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে। সেলিম খানের আবেদনপত্র পাওয়ার বিষয়টি সারাবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার। গুলজার জানান, ‘নিয়ম অনুযায়ী সব পক্রিয়া চলবে। তার সাক্ষাৎকার নেয়া হবে। সেখানে যদি তিনি ঠিকঠাক সব বলতে পারেন তাহলে সদস্যপদ দিতে বাধা থাকবে না।’


পরিচালক সমিতির সদস্যপদ পাওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আত্মবিশ্বাসী সেলিম খান। তবে সমিতি যদি তাকে ফিরিয়ে দেয় তাহলে তার পরিবর্তে অন্য কেউ পরিচালনা করবেন ছবিটি।

এ বিষয়ে সেলিম খান সারাবাংলাকে বলেন, ‘ভালো ছবি উপহার দেয়ার জন্য আমি সিনেমা নির্মাণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

সেলিম খানের হঠাৎ পরিচালক হয়ে যাওয়া চলচ্চিত্র শিল্পের জন্য কতটা লাভজনক? এমন প্রশ্নে যে কেউ কথা বলতে চান না তার প্রমাণ পাওয়া গেল পরিচালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এবং নামকরা পরিচালক বদিউল আলম খোকন। তিনি বলেন, ‘নেতা হলে অনেক কিছু বলা যায় না। সেলিম খান পরিচালক সমিতির সদস্যপদ পেলে এ বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলা যাবে। তবে একজন মানুষ অনেক রকম স্বপ্ন দেখতে পারে। সেই স্বপ্ন বা ইচ্ছাকে শ্রদ্ধা করা উচিৎ।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক পরিচালকই জানিয়েছেন পরিচালনার জন্য ভিন্ন জীবনের দাবি থাকে। প্রযোজনার অভিজ্ঞতা থাকলেই পরিচালক হওয়া যায়না, তা ইতিহাস বলে। এখন ইন্ডাস্ট্রির জন্য প্রয়োজন ভালো মানের সিনেমা। শাকিব খান নিজেও এ কথা বার বার বলছেন। সেক্ষেত্রে সেলিম খানের পরিচালনায় না এসে প্রযোজক হিসেবে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন অনেকেই।

শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত ‘আমি নেতা হবো’ ও ‘চিটাগাংইয়া পোয়া নোয়খাইল্লা মাইয়া’ ছবি দুটি মুক্তি পেয়েছে। শুটিং চলছে ‘বয়ফ্রেন্ড’ ও ‘ক্যাপ্টেন খান’ ছবি দু’টির।

সারাবাংলা/আরএসও/টিএস/পিএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন