Ad

বিজ্ঞাপন

৫০টি স্টার্টআপকে ১০০ কোটি টাকা দিচ্ছে সরকার

March 31, 2021 | 9:48 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ৫০টি স্টার্টআপে ১০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করছে সরকার। প্রযুক্তিনির্ভর নতুন উদ্যোগ ও উদ্ভাবন প্রতিষ্ঠায় ‘শতবর্ষে শত আশা’ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৫০টি উদ্যোগকে তহবিল সহযোগিতা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করেছে আইসিটি বিভাগ।

Ad

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৩১ মার্চ) আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে আইসিটি বিভাগের বাংলাদেশ স্টার্টআপ কোম্পানি লিমিটেড ও উদ্যোক্তাদের মধ্যে চুক্তি সই হয়।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী।

Ad

বিজ্ঞাপন

ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা তুরান, কোরিয়ান কোম্পানি ইয়াংওয়ান কর্পোরেশন চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কিহাক সাঙে, ইউএস মার্কেট অ্যাকসেস প্রেসিডেন্ট ক্রিস বেরি, , লাইট ক্যাসেল সিইও বিজন ইসলাম।

এ সময় চালডাল ডটকম, পাঠাও, সেবা এক্সওয়াই জেড, ইন্টিলিজেন্স মেশিন, এড্যু হাইভ, ঢাকা কাস্ট ও মনের বন্ধু সাতটি স্টার্ট আপের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি সই হয়।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সিড মানি হিসেবে ১৫ কোটি টাকার মূলধন সহযোগিতা দেওয়ার মধ্য দিয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে শতবর্ষে শত আশা ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশকে বাস্তবে রূপ দিতে ধাপে ধাপে মানবসম্পদ উন্নয়ন, ইউনিয়ন পর্যন্ত ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ, আইসিটি বিষয়কে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত বাধ্যতামূলক করা সহ বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে।’

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন সময়োপযোগী ও কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়ার ফলে গত ১২ বছরে দেশের আইসিটি খাত একটি শক্তিশালী ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়েছে। প্রতিবছর প্রায় ২০ লাখ তরুণ-তরুণী কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করছে। তাদের কর্মসংস্থানে আওয়ামী লীগ সরকার আন্তরিকতার সাথে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

‘শতবর্ষে শত আশা’ ক্যাম্পেইন বৈশ্বিক অর্থনীতিতে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এই উদ্যোগ দেশে একটি জাতীয় উদ্যোক্তা প্লাটফর্ম তৈরি করবে এবং নতুন নতুন উদ্ভাবন বাস্তবায়নে গতি সঞ্চালন করবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এর ফলে সম্ভাবনাময় কোনো উদ্যোগই আর ঝরে পড়বে না ও উদ্যোগ বাস্তবায়নের আর্থিক সঙ্কট ঘুচবে এবং নতুন নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে।’

স্টার্টআপ বাংলাদেশ কোম্পানি থেকে ফান্ড পেতে কোনো জামানত বা পুঁজির দরকার হবে না। এখানে বিনেয়াগ পেতে দরকার হবে মেধাসম্পদ। তিনি জুম, নেটফ্লিক্স ও ইউটিউবের মতো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad