Ad

বিজ্ঞাপন

‘সুয়েজ খাল বন্ধ হওয়ায় মানুষ আমাকে দায়ী করেছিল’

April 4, 2021 | 4:09 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সুয়েজ খালে পণ্যবাহী জাহাজ এভারগিভেন আটকে যাওয়ার দিনে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছিল মিশরের প্রথম নারী ক্যাপ্টেন মারওয়া এলসেলেহদারকে। সম্প্রতি তিনি জানিয়েছেন, এভারগিভেন জাহাজটি সুয়েজ খালে আটকে যাওয়ার দায় তার উপরে চাপিয়েছিল মিশরের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা। তবে যখন জাহাজটি খালে আটকে যায় তখন ঘটনাস্থল থেকে শত মাইলে দূরে ছিলেন তিনি।

Ad

বিজ্ঞাপন

মারওয়া এলসেলেহদার জানান, জাহাজ আটকে যাওয়ার দিনটিতে সামাজিক মাধ্যমে তাকেই দায়ী করে মানুষ। কিন্তু সে সময় তিনি ভূমধ্যসাগরের আলেকজান্দ্রিয়ায় আইডা ফোর নামক জাহাজ পরিচালনায় ব্যস্ত। ফোন হাতে নিয়ে দেখেন, সামাজিক মাধ্যমে তাকে দায়ী করে শত শত মানুষের অভিযোগ। বলাই বাহুল্য, একটু ভুয়া সংবাদের স্ক্রিনশট প্রচার করে এ গুজব ছড়িয়েছিল সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারকারীরা। তবে এই বিশেষ গুজবটি ছড়ানোর প্রবণতাটি নারীর প্রতি সমাজের দৃষ্টিভঙ্গিরই ফল হিসেবে মনে করেন তিনি।

বিবিসিকে মারওয়া বলেন, ‘আমি আমার ফোনটি হাতে নিয়ে বিস্ময়ে হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। আমার মনে হয় আমি একজন মিশরীয় নারী এবং এই খাতে সফল নারী—তাই এই বিড়ম্বনায় আমাকে পড়তে হয়েছিল। তবে আমি নিশ্চিত নই’।

Ad

বিজ্ঞাপন

সমুদ্রে কাজ করতে এসে এবারই প্রথম বিড়ম্বনা সইতে হয়নি তাকে, এর আগেও নানা প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। বলাই বাহুল্য, প্রতিটি প্রতিবন্ধকতাকেই জয় করেছেন তিনি। মারওয়া এলসেলেহদার বলেন, ‘আমাদের সমাজ এখনও মেয়েরা সমুদ্রে কাজ করছে এটা মেনে নিতে পারে না। কিন্তু আমার মতে যখন আপনি কোনো কাজ করতে ভালোবাসবেন, তা করার জন্য বাকি সবার অনুমোদনের প্রয়োজন নেই’।

উল্লেখ্য, মিশরের প্রথম নারী ক্যাপ্টেন মারওয়া এলসেলেহদার। তিনি ২০১৫ সাল থেকে মিশরের সমুদ্র নিরাপত্তা কর্তৃপক্ষের মালিকানাধীন আইডা ফোর জাহাজের ক্যাপ্টেন হিসেবে কাজ করছেন।

জাহাজের ক্যাপ্টেন হওয়ার স্বপ্ন পূরণ করতে পড়াশুনা করতে গিয়েও বাঁধাও পড়তে হয়েছিল তাকে। বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, তিনি যখন আরব লীগের বিশ্ববিদ্যালয় আরব অ্যাকাডেমি ফর সায়েন্স, টেকনোলজি অ্যান্ড মেরিটাইম ট্রান্সপোর্টে ভর্তির আবেদন করেন, তখন সেখানে মেয়েদের পড়ার অনুমতি ছিল না। পরে তিনি পড়ার সুযোগ চেয়ে আইনি প্রক্রিয়ার আশ্রয় নিলে তৎকালীন মিশরীয় প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারকের অনুমোদনে তিনি অ্যাকাডেমিতে পড়ার সুযোগ পান।

এর আগে গত ২৩ মার্চ সকালে এভার গিভেন নামক জাহাজটি প্রবল ধূলিঝড় আর বাতাসের কবলে পড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সুয়েজ খালে আড়াআড়িভাবে আটকে যায়। এতে গুরুত্বপূর্ণ এই জলপথটি প্রায় এক সপ্তাহ পুরোপুরি বন্ধ হয়ে পড়ে।

আরও পড়ুন- সুয়েজ খাল বিশ্ব বাণিজ্যের ধমনী

সারাবাংলা/আইই

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad