Ad

বিজ্ঞাপন

আজও শনাক্ত আড়াই হাজার পেরিয়ে, সংক্রমণের হার ১৩%

June 10, 2021 | 4:27 pm

সারাবাংলা ডেস্ক

টানা দ্বিতীয় দিনের মতো দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ একদিনে আড়াই হাজার পেরিয়ে গেছে। আগের দিনের চেয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণ শনাক্তও হয়েছে বেশি। এই সংখ্যা ২৮ এপ্রিলের পর সর্বোচ্চ। অন্যদিকে নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে সংক্রমণের হারও বেড়েছে। ২৫ এপ্রিলের পর এই প্রথম সংক্রমণের পর ১৩ শতাংশ ছাড়িয়েছে।

Ad

বিজ্ঞাপন

এদিকে, আগের দিনের তুলনায় করোনা মৃত্যুও বেড়েছে। আগের দিন ৩৬ জন মারা গেলেও গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৪০ জন। তবে করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরিমাণ আগের দিনের তুলনায় কমেছে।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরার সই করা কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।।

Ad

বিজ্ঞাপন

নমুনা পরীক্ষা কমলেও বেড়েছে শনাক্ত ও সংক্রমণের হার

স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আগের দিনের মতোই ৫১০টি ল্যাবে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এসব ল্যাবে ১৯ হাজার ৮৬৯টি নমুনা সংগ্রহ করে ১৯ হাজার ৪৪৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ নিয়ে দেশে ৬১ লাখ ২৬ হাজার ২৩৮টি নমুনা পরীক্ষা হলো।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে কম। আগের দিন পরীক্ষা হয়েছিল ২০ হাজার ৫৮৪টি। তবে নমুনা পরীক্ষা কমলেও বেড়েছে সংক্রমণ। আগের দিন ২ হাজার ৫৩৭টি সংক্রমণ শনাক্ত হলেও গত ২৪ ঘণ্টায় এই সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৫৭৬টি। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয় দিন আড়াই হাজারের বেশি এবং টানা তৃতীয় দিন দুই হাজারের বেশি সংক্রমণ শনাক্ত হলো। গত ৩০ এপ্রিলের পর এই তিন দিনেই কেবল ২ হাজারের বেশি সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

নমুনা পরীক্ষা কমলেও সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই বেড়েছে সংক্রমণের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে সংক্রমণ শনাক্তের এই হার ছিল ১৩ দশমিক ২৫ শতাংশ। সার্বিকভাবে এই হার ১৩ দশমিক ৩৯ শতাংশ। আর গত ২৫ এপ্রিল সংক্রমণের হার ১৩ দশমিক ৩৩ থাকার পর এই প্রথম সংক্রমণের হার ১৩ শতাংশ ছাড়িয়ে গেল।

কমেছে সুস্থতা, বেড়েছে মৃত্যু

করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে আগের দিন সুস্থ হয়েছিলেন ২ হাজার ২৬৭ জন। সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৬১ জন। এ নিয়ে দেশে করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে উঠলেন ৭ লাখ, ৫৯ হাজার ৬৩০ জন। সার্বিকভাবে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ৯২ দশমিক ৫৯ শতাংশ সুস্থ হয়ে উঠলেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় অবশ্য আগের দিনের তুলনায় মৃত্যু বেড়েছে। আগের দিন ৩৬ জন মারা গেলেও গত ২৪ ঘণ্টায় এই সংখ্যা ছিল ৪০। এ নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত ১২ হাজার ৯৮৯ জন মারা গেলেন। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৮ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় যে ৪০ জন মারা গেছেন, তাদের ৩১ জন পুরুষ, ৯ জন নারী। তাদের তিন জন মারা গেছেন বাসায়। বাকি ৩৭ জনের মধ্যে ৩১ জন সরকারি হাসপাতাল ও ৬ জন বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

করোনায় মৃত্যুবরণকারী এই ৪০ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ ২২ জনের বয়স ৬০ বছরের বেশি। এছাড়া ৮ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছর, ৭ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছর। এছাড়া ২১ থেকে ৩০ ও ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী একজন করে মারা গেছেন। ১০ বছরের কম বয়সী একটি শিশুও করোনা সংক্রমণ নিয়ে মারা গেছেন গত ২৪ ঘণ্টায়।

এদিকে, এই ৪০ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ ১২ জন চট্টগ্রাম বিভাগের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮ জন করে মারা গেছে ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগে। এছাড়া খুলনা বিভাগে ছয় জন, রংপুর বিভাগে ৪ জন ও সিলেট বিভাগে ২ জন মারা গেছেন এই সময়ে।

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad