Ad

বিজ্ঞাপন

নতুন সেনাপ্রধান এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ

June 10, 2021 | 5:56 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশের নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। বর্তমানে সেনাবাহিনীর কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল হিসেবে কর্মরত আছেন তিনি। পদোন্নতি পেয়ে জেনারেল হয়ে আগামী ২৪ জুন থেকে তিন বছর মেয়াদে তিনি এই পদে দায়িত্বভার নেবেন।

Ad

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ওয়াহিদা সুলতানার সই করা এক প্রজ্ঞাপনে তাকে এই নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সেনাপ্রধান হিসেবে শফিউদ্দিন আহমেদ বর্তমান সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হবেন।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, সেনাবাহিনীর কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদকে আগামী ২৪ জুন বিকেল থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে জেনারেল পদে পদোন্নতি দিয়ে প্রতিরক্ষা বাহিনীগুলোর প্রধানদের (নিয়োগ, বেতন, ভাতা এবং অন্যান্য সুবিধা) আইন, ২০১৮ অনুযায়ী তিন বছরের জন্য সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হলো।

Ad

বিজ্ঞাপন

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, লেফটেন্যান্ট জেনারেল থেকে পদোন্নতি পেয়ে জেনারেল হবেন এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। এরপর ২৪ জুন জেনারেল আজিজের স্থলাভিষিক্ত হয়ে তিন বছরের জন্য সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

নবম লং কোর্সের মাধ্যমে কমিশন্ড অফিসার হিসেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। ১৯৮৩ সালের ২৩ ডিসেম্বর তিনি পদাতিক কোরে কমিশন লাভ করেছিলেন। এরপর থেকে সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। এর মধ্যে ২০১২ সালে শফিউদ্দিন আহমেদ ১৯ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) হিসেবে দায়িত্ব পান। এছাড়া তিনি লজিস্টিকস এরিয়া, একটি পদাতিক ব্যাটালিয়ন, বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে (বিএমএ) ব্যাটালিয়ন কমান্ডার, একটি পদাতিক ব্রিগেড ও সেনাসদর প্রশিক্ষণ পরিদফতরের পরিচালক পদে সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০১৯ সালের আগস্ট মাসে মেজর জেনারেল থেকে লেফটেন্যান্ট জেনারেল পদে পদোন্নতি পান শফিউদ্দিন আহমেদ। ওই সময় তাকে আর্মি ট্রেনিং অ্যান্ড ডকট্রিন কমান্ডের (অ্যার্টডক) জিওসি’র দায়িত্ব দেওয়া হয়। পরে গত বছরের ডিসেম্বরে তাকে ওই দায়িত্ব থেকে কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল (কিউএমজি) হিসেবে দায়িত্ব দিয়ে সেনা সদর দফতরে নিয়ে আসা হয়।

চাকরি জীবনে শফিউদ্দিন আহমেদ বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইআইএসএস) মহাপরিচালক এবং ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের সিনিয়র ডাইরেক্টিং স্টাফ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন সেন্ট্রাল অফ্রিকান রিপাবলিকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনের ডেপুটি ফোর্স কমান্ডার হিসেবে।

এর আগে, ২০১৮ সালের ১৮ ‍জুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে বর্তমান সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদকে এই পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। তিনি নতুন সেনাপ্রধান এস এম শফিউদ্দিনের আগের ব্যাচের কর্মকর্তা। বিএমএ অষ্টম লং কোর্স শেষ করে ১৯৮৩ সালের ১০ জুন সেনাবাহিনীতে আর্টিলারি কোরে কমিশন পেয়েছিলেন তিনি। এরপর পার্বত্য চট্টগ্রামে জিএসও-৩ (অপারেশন্স), পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেড মেজর, সেনাসদর প্রশিক্ষণ পরিদফতরের গ্রেড-২ এবং সেনাসদর, বেতন ও ভাতা পরিদফতরের গ্রেড-১ স্টাফ অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন।

জেনারেল আজিজ আহমেদ ২০১২ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত চার বছর সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি’র মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপর আর্মি ট্রেইনিং অ্যান্ড ডকট্রিন্যাল কমান্ডের (আর্টডক) জিওসি এবং কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেলের (কিউএমজি) দায়িত্ব পালন করে ২০১৮ সালের ২৫ জুন সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্বভার নেন। সে হিসাবে আগামী ২৪ জুন সেনাপ্রধান হিসেবে তিন বছরের মেয়াদ শেষ করতে যাচ্ছেন জেনারেল আজিজ আহমেদ।

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad