Ad

বিজ্ঞাপন

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের গালে চড় মারা ব্যক্তিকে আদালতের সাজা

June 10, 2021 | 11:03 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁর গালে চড় মারা ব্যক্তিকে কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। ফ্রান্সের বিএফএম টিভি এ খবর প্রকাশ করেছে।

Ad

বিজ্ঞাপন

ড্যামিয়েন টারেল নামের ২৮ বছর বয়েসি ওই ব্যক্তিকে মূলত ১৮ মাসের সাজা দিয়েছেন আদালত। তবে একই আদেশে কারাদণ্ডের ১৪ মাস স্থগিত করা হয়েছে। অর্থাৎ ড্যামিয়েন টারেলকে ৪ মাস জেলে কাটাতে হবে। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) ভ্যালেন্স শহরের একটি আদালত এ রায় দেন।

এর আগে মঙ্গলবার (৮ জুন) ফ্রান্সের দক্ষিণপূর্ব অঞ্চলে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁর গালে চড় মারেন ড্যামিয়েন টারেল। সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ ভ্যালেন্স শহরে সাধারণ মানুষের সঙ্গে করমর্দন করছিলেন। এসময় প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ দাঁড়িয়ে থাকা ড্যামিয়েন টারেলের দিকে হাত বাড়িয়ে এগিয়ে গেলে তিনি চড় কষেন। ঘটনাস্থল থেকে সঙ্গে সঙ্গেই আটক করা হয় ড্যামিয়েন টারেলকে।

Ad

বিজ্ঞাপন

আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থন করে টারেল বলেন, আবেগের বশবর্তী হয়ে এমন কাণ্ড করেছিলেন তিনি। তবে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা আদালতে এ ঘটনাকে ইচ্ছাকৃত সহিংসতা বলে আখ্যায়িত করে টারেলের ১৮ মাস কারাদণ্ডের আবেদন করেন। আদালত রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন মঞ্জুর করলেও ১৪ মাস কারাদণ্ড তাৎক্ষনিক স্থগিত করে দেন।

ভ্যালেন্সের আদালতে টারেল আত্মপক্ষ সমর্থন করে আরও বলেন, তিনি এমনটা করেছেন— কারণ তার মতে— ফ্রান্সকে যেসব বিষয়গুলো নষ্ট করতে ভূমিকা রাখছে, সেইসব বিষয়গুলোকে  সমর্থন দিচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ।

আদালতে টারেল নিজেকে একজন কট্টর ডানপন্থী বলে পরিচয় দেন। তিনি ফ্রান্সে ইয়োলো ভেস্ট আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত বলেও স্বীকার করেন।

প্রেসিডেন্টের গালে চড় মারার সময় ফরাসি ভাষায় চিৎকার করে কথিত ম্যাঁখোবাদের নিন্দা করেন ড্যামিয়েন টারেল। এছাড়া ফ্রান্সের রাজতন্ত্রের আমলের সামরিক এক রণ স্লোগানও শোনা যায়। এ ব্যাপারে আদালতে তিনি বলেন, এটি একটি দেশাত্মবোধক স্লোগান।

প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ এ ঘটনাকে একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলে উল্লেখ করলেও ‘সহিংসতা’ ও ‘ঘৃণা’কে তিনি গণতন্ত্রের জন্য হুমকি হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

Ad

বিজ্ঞাপন

Tags:

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad