Ad

বিজ্ঞাপন

ভুয়া করোনা সনদ দেওয়ার অভিযোগে ৪ ল্যাবের কার্যক্রম বন্ধ

June 11, 2021 | 12:41 am

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিদেশগামী যাত্রীদের নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ শনাক্তের পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগে চারটি ল্যাবের কার্যক্রম বন্ধ করা হয়েছে। টাকার বিনিময়ে করোনা পজিটিভ ব্যক্তিকে নেগেটিভ রিপোর্ট দেওয়া, নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষায় নানা অনিয়মের কারণে এই চারটি ল্যাবে বিদেশগামী যাত্রীদের নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

Ad

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সারাবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিক) ডা. মো. ফরিদ হোসেন মিঞা।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত ল্যাব চারটি হচ্ছে— সিএসবিএফ হেলথ সেন্টার, স্টিমজ হেলথ কেয়ার, আল জামী ডায়াগনস্টিক সেন্টার এবং মেডিনোভা মেডিক্যাল সার্ভিসেস লিমিটেডের মিরপুর শাখা। নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়ে চারটি ল্যাবকে আলাদাভাবে চিঠি পাঠিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

Ad

বিজ্ঞাপন

ডা. ফরিদ হোসেন মিঞা সারাবাংলাকে বলেন, আমাদের কাছে এসব প্রতিষ্ঠান থেকে করোনার ভুয়া সনদ দেওয়াসহ নানা ধরনের অভিযোগ প্রতিনিয়ত আসছিল। এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানগুলোকে গতকাল (বুধবার, ৯ জুন) চিঠি দেওয়া হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, রাজধানীর পুরানা পল্টনের আল জামী ডায়াগনস্টিক সেন্টার, বাংলামোটরের রূপায়ন ট্রেড সেন্টারে অবস্থিত স্টিমজ হেলথ কেয়ার (বিডি), বিজয় স্মরণীর সিএসবিএফ হেলথ সেন্টার ও মেডিনোভা মেডিকেল সার্ভিসেস মিরপুর শাখায় বিদেশগামী যাত্রীদের ভুয়া করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট দেওয়া হতো টাকার বিনিময়ে। এছাড়াও মিথ্যা তথ্য দিয়ে অনুমোদন নেওয়ারও অভিযোগ আছে। এসব অভিযোগ স্বাস্থ্য অধিদফতর তদন্ত করে সত্য পাওয়ায় তাদের কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে।

অধিদফতরের হাসপাতাল ও ক্লিনিক শাখার পরিচালকের সই করা চিঠিতে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিককালে আপনার প্রতিষ্ঠান থেকে বিদেশগামী যাত্রীদের পজিটিভ রোগীকে নেগেটিভ সনদ দেওয়া, নমুনা সংগ্রহ ছাড়াই নেগেটিভ সনদ দেওয়া, প্রতারণার মাধ্যমে অতিরিক্ত অর্থ আদায়, নমুনা সংগ্রহ বুথের নামে দালাল নিয়োগের মতো বেশকিছু অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডিএইচআইএস-২ ডাটাবেজ যাচাই ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে এসব অভিযোগ প্রমাণিতও হয়েছে। এ ধরনের কর্মকাণ্ড অনাকাঙ্ক্ষিত, জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকিস্বরূপ এবং দেশের ভাবমূর্তি ভয়ংকরভাবে ক্ষুণ্ন করছে।

এ অবস্থায় পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এসব ল্যাব ও এর অধীন অন্যান্য বুথ থেকে নমুনা সংগ্রহসহ বিদেশগামী যাত্রীদের আরটি-পিসিআর পরীক্ষা কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে চিঠিতে।

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad