Ad

বিজ্ঞাপন

‘সমন্বিত পরিকল্পনাই নিশ্চিত করবে টেকসই উন্নয়ন’

June 11, 2021 | 8:33 am

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিদ্যুৎ,জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, সমন্বিত পরিকল্পনাই নিশ্চিত করবে টেকসই উন্নয়ন। পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে প্রয়োজন গতিশীল নেতৃত্ব, সময়োচিত সিদ্ধান্ত আর দক্ষ মানব সম্পদ। নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে গৃহীত হয়েছে সমন্বিত পরিকল্পনা।

Ad

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সিআরআই এএলবিডি ওয়েব টিমের উদ্যোগে আয়োজিত ‘সমৃদ্ধ বাংলাদেশ, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি নিরাপত্তার বাজেট’ শীর্ষক ওয়েবিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ ও গ্যাসের সাশ্রয়ী ব্যবহারে প্রি-পেইড মিটার কার্যকরি অবদান রাখবে। দেশীয় জ্বালানি ব্যবহারে সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা নেওয়া দরকার। ১০ বছর যে জ্বালানি ব্যবহৃত হতো তা কিভাবে ১৫ বছর করা যেতে পারে তা নিয়ে এখনি চিন্তা করা উচিত। বাপেক্সকে শক্তিশালী করার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Ad

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রণোদনা প্রদান অব্যাহত রয়েছে। আগামী দিনে বিদ্যুৎ উৎপাদনের অন্যতম প্রধান উৎস হতে পারে নারায়নযোগ্য জ্বালানি। বায়ু বিদ্যুৎ, ওশান রিনিউবল এনার্জি, বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ, সৌর বিদ্যুৎ ইত্যাদি আগামীর জ্বালানি মিশ্রণে ব্যাপক অবদান রাখবে। টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (স্রেডা) নবায়নযোগ্য জ্বালানি হতে বিদ্যুৎ উৎপাদন ও জ্বালানি সাশ্রয়ে কারিগরি দিকে সহযোগিতা করছে। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিল গবেষণায় অর্থায়ন করছে। তাছাড়া বাংলাদেশ পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট ইন্সটিটিউট প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের আয়োজন করে মানব সম্পদ উন্নয়নে কার্যকরি অবদান রাখছে।

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সালে সমৃদ্ধ বাংলাদেশকে সামনে রেখে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ও ব্যবস্থাপনায় ই আর পি, স্ক্যাডা, স্মার্ট গ্রিড, স্মার্ট প্রিপেইড মিটার, ভূগর্ভস্থ ক্যাবল ব্যবস্থা, ভূগর্ভস্থ উপকেন্দ্র, জি আই ট্রান্সফরমার সংযোজনের উদ্যোগ চলমান। বিগ ডাটার সাথে ইন্টারনেট অব থিংকস সম্পৃক্ত করে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব মোকাবিলায় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ওয়রবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন। তিনি ২০৪১ সালের বিদ্যুৎ ও জ্বালানির চাহিদা এবং যোগান নিয়ে আলোকপাত করেন। ফোরাম ফর এনার্জি রিপোর্টার্স বাংলাদেশ-এর চেয়ারম্যান অরুণ কর্মকার, এনার্জি এন্ড পাওয়ার ম্যাগাজিনের সম্পাদক মোল্লাহ আমজাদ হোসাইন ও ডেইলি অবজারভারের বিশেষ প্রতিনিধি শাহনাজ বেগম প্যানেলিস্ট হিসেবে উপস্থিত থেকে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের বর্তমান অবস্থা, সম্ভাবনা ও অসঙ্গতি নিয়ে আলোচনা করেন। বক্তাদের আলোচনায় সক্ষমতা বৃদ্ধি, মানব সম্পদ উন্নয়ন, আমদানি নির্ভরতা হ্রাস, দক্ষতার সাথে এনার্জি নিগোসিয়েশন ও দেশীয় সম্পদের অনুসন্ধান বাড়ানো বিষয় উঠে আসে।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদের সঞ্চালনার অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক ওয়াসেকা আয়েশা খান এমপি, জ্বালানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ম তামিম ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ সংযুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন।

Ad

বিজ্ঞাপন

Tags:

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad

বিজ্ঞাপন

Ad