বিজ্ঞাপন

শপথ শেষে এরশাদ বললেন, ‘আমি গর্বিত’

January 6, 2019 | 1:47 pm

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট।।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা: রংপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এ সময় এরশাদ হুইল চেয়ারে করে সংসদ ভবনে আসেন।

রোববার (৬ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় এরশাদ জাতীয় সংসদ ভবনে এই শপথ নেন। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী রংপুর-৩ আসনের এই সংসদ সদস্যকে শপথবাক্য পাঠ করান।

বিজ্ঞাপন

গত ৩ জানুয়ারি সংসদ ভবনে আওয়ামী লীগ ও মহাজোটের প্রার্থীরা শপথ নেন। কিন্তু শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকায় এরশাদ ওইদিন শপথ নিতে পারেননি। শপথগ্রহণের সময় চেয়ে জাপা চেয়ারম্যান স্পিকারের কাছে সময় চান।

একাদশ জাতীয় সংসদে জাতীয় পার্টি এবার শুধু বিরোধী দলে থাকছে। গত ৪ জানুয়ারি স্পিকারকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান জাপা চেয়ারম্যান।

বিজ্ঞাপন

শপথ শেষে এরশাদ বললেন, ‘আমি গর্বিত’

শপথ গ্রহণ শেষে এরশাদ এই বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন, ‘এবার জাতীয় পার্টি সত্যিকার বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করবে। সত্যিকার বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করতে সব ধরনের চেষ্টা করব। বিরোধী দলের নেতা হিসেবে আমি সত্যিই গর্বিত।’

বিজ্ঞাপন

এরশাদ বলেন, ‘সংসদের ডেপুটি স্পিকারকে যেন জাতীয় পার্টি থেকে নিয়োগ দেওয়া হয় সরকার প্রধানের কাছে এই দাবি থাকবে। এছাড়া ডেপুটি স্পিকার ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপের ক্ষমতা বৃদ্ধির বিষয়টিও জাতীয় পার্টি থেকে দাবি করা হবে।’

এরশাদের বক্তব্যের পর জাপার মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গাঁ বলেন, ‘২৭ বছর এই প্রথম সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে কোনো পুরুষ বসতে যাচ্ছেন।’

বিজ্ঞাপন

গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার কারণে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান নির্বাচনে মাঠে ছিলেন না। তিনি নির্বাচনী প্রচারের সময় উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যান। চিকিৎসা শেষে ভোটের চারদিন আগে দেশে ফিরে বাসায় বিশ্রামে ছিলেন জাপা চেয়ারম্যান। এমনকি তিনি নিজ নির্বাচনি এলাকাতেও যাননি।

জাতীয় পার্টি এই নির্বাচনে ২২টি আসন পেয়েছে। তবে জাতীয় পার্টি দশম জাতীয় সংসদের মতো সরকারি দলে থাকবে, না বিরোধী দলে থাকবে এই নিয়ে মতবিরোধ দেখা যায় জাতীয় পার্টির নীতি নির্ধারণী বৈঠকে। ওই বৈঠকে এরশাদের প্রতিনিধিত্ব করেন পার্টির সিনিয়র কো চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ।

এর পরদিন এরশাদ স্পিকারকে লিখিত চিঠিতে জানান, জাতীয় পার্টির কোনো সদস্য এবার মন্ত্রিপরিষদে থাকবে না।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন