বিজ্ঞাপন

পাঁচ গীতিকবির গানে ছায়ানটের লোকসংগীতানুষ্ঠান

January 4, 2020 | 3:05 pm

জসীম উদ্‌দীন, মনমোহন দত্ত, দূরবীন শাহ্, আব্দুল হালিম এবং বাউল চাঁন মিয়া। প্রখ্যাত এই পাঁচ গীতিকবির গান নিয়ে ছায়ানট আয়োজন করেছিল বার্ষিক লোকসংগীতানুষ্ঠান ১৪২৬। শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ছায়ানট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় এই লোকসংগীতানুষ্ঠান। এবারের আয়োজন উৎসর্গ করা হয় কবি জসীম উদ্‌দীনকে।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানের শুরুতে লোকগান নিয়ে নিয়ে কথা বলেন ছায়ানট সংগীত বিদ্যায়তনের লোকসংগীত বিভাগের শিক্ষক তপন মজুমদার।

পাঁচ গীতিকবির গানে ছায়ানটের লোকসংগীতানুষ্ঠান

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠান শুরু হয় সম্মেলক কণ্ঠে জসীমউদ্দীনের লেখা ‘এই না রূপে নয়ন দিয়ে’ গানের পরিবেশনা দিয়ে। এরপর একে একে জসীমউদ্দীনেরই লেখা গান পরিবেশন করেন সরদার মো: রহমাতুল্লা, পলি রায়, সঞ্চিতা বর্মণ।

এরপর শুরু মনমোহন দত্ত’র লেখা গানের পরিবেশনা। শুরুতেই সম্মেলক গান ‘জগত জননী জাগো’। একক পরিবেশনায় ছিলেন মহিতোষ কুমার মণ্ডল, মো. মানিক ও মুকুল মজুমদার।

পাঁচ গীতিকবির গানে ছায়ানটের লোকসংগীতানুষ্ঠান

তৃতীয় পর্বে ছিল দূরবীন শাহ্’র লেখা গান। প্রথমেই সম্মেলক গান ‘কাইন্দোনা রাই কমলিনী’। দূরবীন শাহ্’র লেখা গানের একক পরিবেশনায় ছিলেন নারায়ণ চন্দ্র শীল, জোনাকী রাণী শীল, আবুল কালাম আজাদ ও এরফান হোসেন।

চতুর্থ পর্বে আব্দুল হালিম’র লেখা গান। শুরুতেই সম্মেলক গান ‘তোরা আয়রে চাষী ভাই’। একক পরিবেশনায় ছিলেন বিমান চন্দ্র বিশ্বাস ও নাজমুল আহ্‌সান তুহিন।

পাঁচ গীতিকবির গানে ছায়ানটের লোকসংগীতানুষ্ঠান

শেষ পর্বে বাউল চাঁন মিয়া’র লেখা গানের পরিবেশনা। প্রথমেই সম্মেলক কণ্ঠে ‘আর কি শ্যাম আসিবে গো’ এবং পরে একক গান পরিবেশন করেন সুপ্রিয়া শাহনেওয়াজ ও মো: খায়রুল ইসলাম।

সারাবাংলা/এএসজি/পিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন