বিজ্ঞাপন

করোনার আগ্রাসন: প্রবাসীকর্মীদের দেশে পাঠানো হচ্ছে

April 16, 2020 | 12:37 am

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: করোনা আগ্রাসনের কারণে প্রতিটি দেশিই এখন নিজেদের সুরক্ষা নিয়ে ব্যস্ত। এমন পরিস্থিতিতে মধ্যপ্রাচ্যসহ একাধিক দেশ প্রবাসীকর্মী কমিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই কারণে বিদেশে কর্মরত প্রবাসীকর্মীরা দেশে ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন। কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানাচ্ছে, চলতি সপ্তাহে কমবেশি হাজারখানেক প্রবাসীকর্মী দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

প্রবাসীকর্মীদের সুরক্ষা বিষয়ে বুধবার (১৫ এপ্রিল) তৃতীয় আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে এক ভিডিও বার্তায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘মধ্যপ্রচ্যের দেশগুলো এই সময়ে তাদের দেশ থেকে প্রবাসী কর্মী কমানোর চেষ্টা করছে। এমন পরিস্থিতিতে আমরা যদি তাদের (প্রবাসীকর্মী) ফিরিয়ে না আনি, হ্যাঁ বা না কিছু না জানাই তবে পরবর্তী সময়ে এই দেশগুলো আমাদের কাছ থেকে আর লোক নেবে না। সে জন্য আমরা আনছি তবে উৎসাহ দেখিয়ে আনছি না। না আনলে অসুবিধা হবে, এই জন্য আনছি, তাদেরকে বলেছি পাঠাও কিন্তু খুব অল্প অল্প করে আমরা আনার চেষ্টা করব। বিদেশের জেলে থাকা বাংলাদেশিদের দেশে পাঠানোর জন্য তারা তাড়া দিচ্ছে। আমরা এই বিষয়েও দেখেশুনে কাজ করছি।’

একাধিক কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, চলমান করোনা দুর্যোগের কারণে মালদ্বীপ, কুয়েতসহ একাধিক দেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়ে অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরাতে বলেছে। শুধু তাই নয় অনেক দেশ আবার বৈধভাবে থাকা প্রবাসীদেরও ফিরিয়ে নেওয়ার কথা তুলেছে। করছে। যে কারণে একাধিক দেশে অবৈধভাবে বসবাস করা বাংলাদেশিদের নিয়ে চাপে রয়েছে সরকার।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, গত ৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালেয় থেকে গণমাধ্যমে বার্তা পাঠিয়ে জানান হয় যে কঠিন সময়ে এই চাপ খুব যত্নের সঙ্গে মোকাবিলা করা হচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আশা করে যে অন্য দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের যে সম্পর্ক, সেই অবস্থান থেকে এই চাপ তেমন ঝামেলার সৃষ্টি করবে না।

ওইদিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, ‘খুব বেশি দেশ না, কয়েকটি দেশ, ৪/৫ টা দেশের মত। কিন্তু আপনারা জানেন যে বিদেশে আমাদের সংখ্যাতো অনেক বেশি। একটি দেশই যদি হয় তবে অনেক লোক হয়ে যায়। সেইদিক থেকে দেশের সংখ্যা খুব বেশি না। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে যে একেক দেশেই আমাদের অনেকলোক আছে।’

একাধিক কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (১৫ এপ্রিল) রাতেই সৌদি আরব থেকে বিশেষ ফ্লাইটে কমবেশি ৩৫০ জন বাংলাদেশি ফিরছে। যার মধ্যে ওমরাহ যাত্রী ১৩২ জন, বাকিরা প্রবাসী কর্মী। এই সপ্তাহে একাধিক দেশ থেকে প্রায় হাজারখানেক প্রবাসী কর্মী দেশে ফেরার কথা রয়েছে। যার মধ্যে কুয়েত থেকেই ফিরবে কমবেশি ৩৫০ জন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেআইএল/একে

Tags: , , , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বিবৃতি প্রত্যাহার চায় ক্র্যাব‘দেশে লাইসেন্সধারী ইন্টারনেট সরবরাহকারী ২৬৫০টি’ভারতের ১৮তম লোকসভার প্রথম অধিবেশ আজ, শপথ নিয়েছেন সদস্যরারাষ্ট্রায়ত্ত ৫৬ প্রতিষ্ঠানের কাছে পাওনা ৫১ হাজার ৩৯১ কোটি টাকা‘ছাগলকাণ্ডে’ আলোচিত মতিউরকে সোনালী ব্যাংক থেকেও অব্যাহতিএমপি আজীম হত্যা: আওয়ামী লীগ নেতা বাবুর রিমান্ড নামঞ্জুরদুই দেশের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক স্লোগান, নিষিদ্ধ আলবেনিয়ার ফুটবলারবৈশ্বিক অর্থনীতিতে বিভিন্ন সংকট অনুভূত হচ্ছে: অর্থমন্ত্রীভারত সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন মঙ্গলবারবেনজীরের স্ত্রী-মেয়ের বিরুদ্ধে পরবর্তী কার্যক্রম চলবে: দুদক সচিব সব খবর...
বিজ্ঞাপন