বিজ্ঞাপন

আগে পশুর হাট ইজারা, স্বাস্থ্যবিধির সিদ্ধান্ত পরে

June 18, 2020 | 12:53 pm

সাদ্দাম হোসাইন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: পবিত্র ঈদুল আজহায় ঢাকার দুই সিটির ২৪ জায়গায় বসবে কোরবানির পশু বেচাকেনার অস্থায়ী হাট। এর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় বসবে ১৪টি ও ঢাকা উত্তর সিটি (ডিএনসিসি) এলাকায় বসবে ১০টি হাট। হাট ইজারা দিতে উভয় সিটি করপোরেশন প্রক্রিয়া শুরু করেছে। তবে এ সব অস্থায়ী হাটে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি কীরকম হবে সে বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ।

পশুর হাট ইজারা চূড়ান্ত করতে এরইমধ্যে দরপত্র আহ্বান করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। তবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এখনও পশুর হাট ইজারার দরপত্র চূড়ান্ত করতে পারেনি। প্রস্তুতি চলছে। আগামী রোববার (২১ জুন) নাগাদ উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বান করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

ডিএসসিসি সূত্রে জানা গেছে, গত ১৪ জুন ১৪টি হাটের অস্থায়ী ইজারার জন্য দরপত্র আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। আগামী ২৮ জুন প্রথম পর্যায়ে দরপত্র কেনার শেষ সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। দরপত্র জমা দিতে হবে ২৯ জুন। দ্বিতীয় পর্যায়ে দরপত্র কেনার শেষ সময় নির্ধারণ করা হয়েছে ৮ জুলাই। আর জমা দেওয়ার শেষ সময় ৯ জুলাই। তৃতীয় পর্যায়ে দরপত্র কেনার শেষ সময় ১৯ জুলাই এবং জমা দেওয়ার শেষ সময় ২০ জুলাই।

দরপত্র আহ্বান করা ডিএসসিসি এলাকার অস্থায়ী পশুর হাটগুলো হলো- উত্তর শাহজাহান পুরের মৈত্রী সংঘ মাঠ এলাকার খালী জায়গা, হাজারীবাগের ইনস্টিটিউট অফ লেদার টেকনোলোজি মাঠ সংলগ্ন খালি জায়গা, কামরাঙ্গীরচরের ইসলাম চেয়ারম্যান বাড়ি থেকে দক্ষিণ বুড়িগঙ্গা বাঁধ পর্যন্ত খালি জায়গা, পোস্তাগোলা শ্মশান ঘাট এলাকার খালি জায়গা, শ্যামপুর বালুর মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, খিলগাঁও মেরাদিয়া বাজারের আশপাশের খালি জায়গা, আরমানিটোলা মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, গোপীবাগেে বালুর মাঠ ও কমলাপুর স্টেডিয়াম সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, যাত্রাবাড়ির দনিয়া কলেজ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ধূপখোলা মাঠ সংলগ্ন খালি জায়গা, সাদেক হোসেন খোকা মাঠ সংলগ্ন ধোলাইখাল ট্রাকস্ট্যান্ড এলাকা, ডিএসসিসির আফতাফ নগরের (ইস্টার্ন হাউজিং) ব্লক ই, এফ, জি ও এইচ এবং সেকশন১ ও ২ এর খালি জায়গা, আমুলিয়া মডেল টাউনের খালি জায়গা এবং লালবাগের রহমতগঞ্জ খেলার মাঠের আশপাশের খালি জায়গা।

বিজ্ঞাপন

দরপত্রে উত্তর শাহজাহান পুরের মৈত্রী সংঘ মাঠ এলাকার খালী জায়গার ইজারা মূল্য ধরা হয়েছে ৮ লাখ ৬৯ হাজার ৫৫৫ টাকা। হাজারীবাগের ইনস্টিটিউট অব লেদার টেকনোলোজি মাঠ সংলগ্ন খালি জায়গার ইজারা মূল্য ১ কোটি ৭ লাখ ৬ হাজার টাকা। কামরাঙ্গীরচরের ইসলাম চেয়ারম্যান বাড়ি থেকে দক্ষিণ বুড়িগঙ্গা বাঁধ পর্যন্ত খালি জায়গা ৫ লাখ ৭২ হাজার ৪০০ টাকা। পোস্তাগোলা শ্মশান ঘাট এলাকার খালি জায়গা ৩১ লাখ ৬৯ হাজার ৪০০ টাকা।

শ্যামপুর বালুর মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা ১ কোটি ২ লাখ ১১ হাজার ৩৩৫ টাকা। খিলগাঁও মেরাদিয়া বাজারের আশপাশের খালি জায়গা ১ কোটি ৯ লাখ ৩৯ হাজার ৮০০ টাকা। আরমানিটোলা মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা ১ কোটি ৬৫ লাখ ২৮ হাজার ৫৪ টাকা।গোপীবাগ বালুর মাঠ ও কমলাপুর স্টেডিয়াম সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা ৮৭ লাখ ২০ হাজার ৬৮৫ টাকা। যাত্রাবাড়ির দনিয়া কলেজ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা ১ কোটি ৫৪ লাখ ৪০ হাজার ৬৬৭ টাকা।

বিজ্ঞাপন

ধূপখোলা মাঠ সংলগ্ন খালি জায়গা ৪৬ লাখ ৮১ হাজার ৩৩৪ টাকা। সাদেক হোসেন খোকা মাঠ সংলগ্ন ধোলাইখাল ট্রাকস্ট্যান্ড এলাকা ২৬ লাখ ৮৭ হাজার ৮০৭ টাকা। ডিএসসিসির (ইস্টার্ন হাউজিং) ব্লক ই, এফ, জি ও এইচ এবং সেকশন১ ও ২ এর খালি জায়গা ৬৬ লাখ ২৫ হাজার টাকা। আমুলিয়া মডেল টাউনের খালি জায়গা ১১ লাখ ১৫ হাজার ৬৫০ টাকা এবং লালবাগের রহমতগঞ্জ খেলার মাঠের আশপাশের খালি জায়গা ১১ লাখ ৭৩ হাজার ৩৫০ টাকা।

তবে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে করোনাকালে পশুর হাটে কী ধরনের নিয়ম অনুসরণ করা হবে সে বিষয়ে কোনো তথ্য উল্লেখ করা হয়নি।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. রাসেল সাবরিন সারাবাংলাকে বলেন, ডিএসসিসি এলাকার অস্থায়ী কোরবানীর পশুর হাটের দরপত্র প্রকাশ করে ইজারার জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। ইজারা চুড়ান্ত হলে করোনা সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে কীভাবে হাট পরিচালনা করা হবে সে বিষয়ে পরে ইজারাপ্রাপ্তদের নির্দেশনা দেওয়া হবে।

এদিকে ডিএনসিসির সম্পত্তি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এ বছর ডিএনসিসি এলাকায় ১০ টি অস্থায়ী পশুর হাট ইজারা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। তবে হাটগুলো এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি। আগামী রোববার নাগাদ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক।

বিজ্ঞাপন

তিনি সারাবাংলাকে বলেন, ‘আজ (১৭ জুন) হাট ইজারা দেওয়ার বিষয়ে আমরা অভ্যন্তরীণ মিটিং করেছি। মিটিংয়ে ১০টি হাট ইজারা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। রোববারের মধ্যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হতে পারে। তবে হাটগুলোর নাম প্রকাশ করতে চাননি তিনি।

তবে ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, এবারও উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ১ নম্বর ব্রিজের পশ্চিম অংশে ও ২ নম্বর ব্রিজের পশ্চিমে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের উভয় পাশের ফাঁকা জায়গা, মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়কসংলগ্ন (বছিলা), মিরপুর পুলিশ লাইনসের খালি জায়গা, মিরপুর সেকশন-৬, ওয়ার্ড-৬-এর (ইস্টার্ন হাউজিং) খালি জায়গা, ভাটারা (সাঈদনগর) পশুর হাট, মিরপুর ডিওএইচএসের উত্তর পাশের সেতু প্রপার্টি ও সংলগ্ন খালি জায়গার অস্থায়ী পশুর হাট, ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট খেলার মাঠ, বাড্ডার ইস্টার্ন হাউজিং (আফতাবনগর) ব্লক-ই, আফতাবনগর সেকশন-৩-এর খালি জায়গা, কাওলা-শিয়ালডাঙ্গাসংলগ্ন খালি জায়গা ও মিরপুরের ভাষানটেক মাঠ এবং এর আশপাশের খালি জায়গা অস্থায়ী পশুর হাটের জন্য ইজারা দিতে পারে ডিএনসিসি।

হাটগুলোর স্বাস্থ্যবিধি কী রকম হতে পারে জানতে চাইলে প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক বলেন, ‘করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে স্বাস্থ্যবিধি কী রকম হবে। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর যে সব নির্দেশনা দেবে সেগুলো মেনে চলা হবে। নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখা হবে।’

দূরত্ব বজায় রাখা হলে তো হাটের জায়গা সংকুলান হবে, হাটের আওতা বাড়ানো হবে কি না জানতে চাইলে প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা বলেন, ‘হাটের জায়গা আগের মতোই থাকবে। এই জায়গাতেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। হাটের জায়গায় সংকুলান না হলে আমাদের কিছু করার নেই।’

সারাবাংলা/এসএইচ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন