বিজ্ঞাপন

১২ বছরের কম বয়সীদের ভ্যাকসিন এখনই নয়: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

November 1, 2021 | 2:58 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু করা হয়েছে। তবে এখনই ১২ বছরের কম বয়সীদের জন্য ভ্যাকসিন দেওয়ার কোনো পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

জাহিদ মালেক বলেন, পর্যায়ক্রমে সারাদেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম শুরু করা হবে। আপাতত রাজধানীর আটটি স্কুলকে টিকাদান কার্যক্রমের জন্য ক্লাস্টার হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এ আট কেন্দ্রে প্রতিদিন ৫ হাজার করে ৪০ হাজার শিশুকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। সেই হিসাবে একটি কেন্দ্রে দৈনিক ৫ হাজার শিশুকে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, আমরা ফাইজারের ৯৬ লাখ ভ্যাকসিন পেয়েছি, হাতে আছে আরও ৮২ লাখ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে তারা আগামীতে আরও ফাইজার ও মডার্নার ভ্যাকসিন দেবে। সেগুলো দিয়ে পর্যায়ক্রমে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের শিশুদেরও ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, ফাইজারের ভ্যাকসিন সংরক্ষণের জটিলতা কেটেছে। আগের তুলনায় দ্বিগুণ আল্ট্রা লো ফ্রিজার (অতি সংবেদনশীল) আছে। তাই, গ্রামেও দিতে পারবো বলে আমরা বিশ্বাস করি।

বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ১২ বছরের নীচে এখনই ভ্যাকসিন নয়। ড্রপ আউট হোক আর যেই হোক সবার ভ্যাকসিন প্রয়োজন, ব্যবস্থা করা হবে।

তিনি বলেন, আমরা প্রতিদিন ৫-৬ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দিয়ে থাকি। এখানে আরও ৪০ হাজার স্কুল শিক্ষার্থী যুক্ত হলো। ৪০ হাজার কেন, চার লাখ যুক্ত হলেও আমরা সেটা দিতে পারবো। আমাদের তার জন্য জনবল, ভ্যাকসিন, ব্যবস্থা সবই আছে। আরও প্রয়োজন হলে আরও বাড়াবো।

বিজ্ঞাপন

এ সময় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, তোমরা ভ্যাকসিন পেয়ে যাবে। পড়াশোনায় মনোযোগী হও— স্কুলে আসো, কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। মাস্ক পরতে হবে। সংক্রমণ কিন্তু ভ্যাকসিন রোধ করতে পারে না।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. লোকমান হোসেন মিয়া অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মাহবুব হোসেন, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. খুরশীদ আলম, বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলারসহ অন্যান্যরা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন