বিজ্ঞাপন

যুবদল কর্মীর মৃত্যুর খবর শুনে ঢামেকে বিএনপি নেতারা

September 22, 2022 | 11:45 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: মুন্সীগঞ্জে পুলিশ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন যুবদল কর্মী শহিদুল ইসলাম শাওনের মৃত্যু খবর শুনে হাসপাতালে যান বিএনপি নেতা মির্জা আব্বাস, আমানউল্লাহ আমানসহ নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে ঢামেকে গিয়ে নিহতের স্বজনদের সমবেদনা জানান তারা। এর আগে, রাত সাড়ে ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাওনের ‍মৃত্যু হয়।

বিজ্ঞাপন

ঢামেকে উপস্থিত সাংবাদিকদের মির্জা আব্বাস বলেন, ‘আমাদের যেখানেই বড় কোনো মিছিল, মিটিং হচ্ছে সেখাইনেই গুলি করা হচ্ছে। এটা অত্যাচারের শেষ সীমায় চলে গেছে। তারা বুঝে গেছে তারা আর ক্ষমতায় থাকতে পারবে না। এজন্য মরণ কামড় দিচ্ছে। আমরা সাংঘাতিক মানসিক যন্ত্রণার মধ্যে আছি।’ তিনি বলেন, ‘নেতাকর্মীদের সঙ্গে বসে পরবর্তি কর্মসূচি ঘোষণা করব। তবে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করা হবে।’

বিএনপি নেতা আমানউল্লাহ আমান বলেন, ‘আমরা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, ভোটাধিকার, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য তেল, গ্যাসের দাম কমানোর জন্য দাবি-দাওয়া নিয়ে কর্মসূচি দিয়েছিলাম। সেই কর্মসূচিতেই প্রথমে ভোলাতে ছাত্রনেতা নুর আলম, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আ. রহিম ও নারায়ণগঞ্জে একজনকে হত্যা করা হয়। বুধবার মুন্সীগঞ্জেও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি ছিল। সেখানে তারা গুলি চালিয়েছে। এটি এই সরকারের দমন নীতি। তারা মনে করেছে, গুলি চালিয়ে আন্দোলন বন্ধ করবে। তবে এটা কখনও সম্ভব নয়।’

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, ‘শহিদের রক্তে রঞ্জিত হয়েছে সরকারের হাত। আমাদের আন্দোলন চলছে। যতদিন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার না হয়, ততদিন চলবেই।’

শুক্রবার বাদ জুমা নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে শাওনের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে বলে এ সময় জানান নেতারা। আর শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ৩টায় একই স্থানে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবেন তারা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএসআর/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন