বিজ্ঞাপন

২৪ ঘণ্টায় ২ মৃত্যু, শনাক্ত ৪৬০

October 11, 2022 | 6:21 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নভেল করোনাভাইরাসে সংক্রমিতদের মধ্যে নতুন করে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪৬০ জনের শরীরে। যা আগের দিন ছিল ৩৬৭ জন। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ২০ লাখ ৩০ হাজার ৫৫০ জন।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীরের সই করা করোনাভাইরাসের সংক্রমণ-মৃত্যু সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫৬৪ জন। যা আগের দিন ছিল ৬৪৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৭১ হাজার ২০৩ জন। প্রতি ১০০ জনে সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ০৮ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে নমুনা সংগ্রহ করা হয় ৫ হাজার ২০৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তবে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫ হাজার ১৯৩টি নমুনা। এ সব নমুনা পরীক্ষায় ৪৬০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ছিল ৮ দশমিক ৮৬ শতাংশ। যা আগের দিন ৯ দশমিক ১৯ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৬১ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২৯ হাজার ৩৮৬ জন। এছাড়া করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত দু’জনের একজন পুরুষ এবং আরেকজন নারী। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে পুরুষ রোগী মারা গেছে ১৮ হাজার ৭৫৯ জন। যা শতকরা হারে ৬৩ দশমিক ৮৪ শতাংশ। এছাড়া করোনায় এ পর্যন্ত ১০ হাজার ৬২৭ জন নারীর মৃত্যু হয়েছে। যা শতকরা হারের ৩৬ দশমিক ১৬ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৮২টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে আরটি পিসিআর ল্যাব ১৬১টি, জিন এক্সপার্ট ল্যাব ৫৭টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ল্যাব ৬৬৪টি। এ সব ল্যাবে এ পর্যন্ত ১ কোটি ৪৯ লাখ ২২ হাজার ৭০২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯৮ লাখ ৪০ হাজার ৩০৬টি, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫০ লাখ ৮২ হাজার ৩৯৬টি।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। ২০২১ সালের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন