বিজ্ঞাপন

সাকিব-লিটন ইস্যুতে বিসিবি-হাথুরুর সঙ্গে একমত নন মাশরাফি

March 27, 2023 | 5:13 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

আসন্ন আইপিএলে দল পাওয়া তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান, লিটন দাস ও মোস্তাফিজুর রহমানের ছুটি পাওয়া না পাওয়া নিয়ে চলছে নানান কথা। আইপিএলের শুরু এবং শেষের সময়ে বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলা আছে। ওই সময়ে সাকিব-লিটনদের আইপিএল খেলতে ছুটি দিতে চায় না বিসিবি। হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহেও দিয়েছেন একই বার্তা। তবে সাবেক সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা মনে করছেন, আইপিএলের সময় ছুটি দেওয়া উচিত টুর্নামেন্টটিতে সুযোগ পাওয়া বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের।

বিজ্ঞাপন

আইপিএলের সময় অনেক দলই আন্তর্জাতিক সূচি রাখে না। আবার কোনো কোনো দলের খেলা থাকলেও আইপিএলে সুযোগ পাওয়া ক্রিকেটারদের ছেড়ে দেয় তারা। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো দলের জন্য এসব নিয়মিত ঘটনা। বাংলাদেশও আগে সাকিব আল হাসানকে জাতীয় দলের খেলা থাকার সময় আইপিএলের জন্য ছুটি দিয়েছে। আইপিএল বড় টুর্নামেন্ট যেখানে বিশ্বের সেরা ক্রিকেটাররা খেলেন, ফলে সেখানে খেলে স্কিলের উন্নতি ঘটানোর বড় সুযোগ বলে ক্রিকেটারদের ছেড়ে দেয় বোর্ডগুলো। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এবার নিয়েছে ভিন্ন সিদ্ধান্ত।

আগামী ১ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে এবারের আইপিএল, শেষ হবে ২৮ মে। বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ড চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষ হবে ৩১ মার্চ। এরপর ৪ এপ্রিল থেকে মিরপুরে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। টেস্ট ম্যাচ শেষ হওয়ার কথা ৮ এপ্রিল। এদিকে আগামী ৯, ১২ ও ১৪ মে ইংল্যান্ডের চেমসফোর্ডে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আরও তিনটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ। সেই ম্যাচগুলো আবার ওয়ানডে সুপার লিগের অংশ।

বিজ্ঞাপন

সাকিব-লিটনরা আইপিএলের জন্য ছুটি চেয়েছিলেন আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর থেকে। একমাত্র টেস্ট ও চেমসফোর্ডের তিনটি ওয়ানডে খেলতে চাননি তারা। কিন্তু বোর্ডের পক্ষ থেকে সেই দাবি মানা হয়নি। হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহেও বলেছেন, দেশের খেলা থাকলে আইপিএলের জন্য ছুটি মিলবে না। মাশরাফি বিন মুর্তজা মনে করছেন, সার্বিক দিক বিবেচনা করে আইপিএলের জন্য ছেড়ে দেওয়া উচিত সাকিবদের।

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে আজ সোমবার (২৭ মার্চ) লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে মোহামেডানের বিপক্ষে মাত্র ১৭ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন মাশরাফি। ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে সাকিব-লিটন-মোস্তাফিজের ছুটি পাওয়া নিয়ে প্রশ্ন করা হলো মাশরাফিকে।

বিজ্ঞাপন

সাবেক সফল অধিনায়ক বলেন, ‘যে তিনজন ক্রিকেটারকে নিয়ে কথা হচ্ছে, তারা যদি যেতে চায় অবশ্যই যেতে দেয়া উচিত। সারা বিশ্বের ক্রিকেটাররাই তো যাচ্ছে। তো শুধু শুধু আমাদের আটকে রেখে লাভ কি? নির্ভর করছে ওই প্লেয়ার কী চায় এটার ওপর। এজন‌্য আলোচনা করা উচিত। সাকিব-লিটন ওরা ওদের কথা বলবে, তারপর বোর্ড বোর্ডের কথা বলবে। এভাবে একটা আলোচনা হবে। আমরা মিডিয়ায় এতো কথা বলে লাভ নেই। একটা সমাধান তো হবে নিশ্চয়ই।’

গত ইংল্যান্ড সিরিজ এবং চলতি আয়াল্যান্ড সিরিজে বেশ কয়েকজন নতুন ক্রিকেটারকে খেলিয়েছে বাংলাদেশ, সফলতাও মিলেছে। এদিকে আয়ারল্যান্ড টেস্টে খুব বড় প্রতিপক্ষ নয়। ফলে সাকিব-লিটনদের আটকে না রাখারই পক্ষে মাশরাফি। বলেছেন, ‘টেস্ট খেলা থাকলেও সেটা যদি ম্যানেজেবল হয় অন্য কাউকে দিয়ে তাহলে তাদের গেলে তো সমস্যা নেই। পৃথিবীর অন্যান্য কোনো দেশ তো কোনো ক্রিকেটারকে আটকাচ্ছে না। আমরা শুধু শুধু ইমোশনাল হয়ে তো লাভ নেই।’

বিজ্ঞাপন

‘আমরা অনেক প্লেয়ারকে চেঞ্জ করে খেলাচ্ছি। খেলাচ্ছি না তা তো না। ওদের যখন ভালো জায়গায় সুযোগ হয়, তখন বারবার আটকানো তো ঠিক না। খোলামেলা আলাপ করা উচিত ওদের সাথে। ওরা যদি মন থেকে যেতে চায় তাহলে.. হোয়াই নট? আয়ারল্যান্ডের সাথে যেহেতু টেস্ট ম্যাচ আমার মনে হয়, আমাদের এটা ম্যানেজ করার এবিলিটি আছে। বিশেষ করে টেস্ট ম্যাচে।’

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন